বিশ্বজুড়ে করোনার বিস্তার, বাড়ছে মৃত্যুর হারও

|

চীনের পরিস্থিতির উন্নতি হলেও ইতালি, যুক্তরাষ্ট্র ও জার্মানিসহ বিভিন্ন দেশে করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে। নতুন রোগী ও মৃতের সংখ্যা বাড়তে থাকায় বিশ্বজুড়ে আতঙ্ক বিরাজ করছে। আক্রান্তের সংখ্যা এক লাখ ১৩ হাজার ছাড়িয়ে গেছে। ৪০১৮ জন মারা গেছে। এর মধ্যে চীনে তিন হাজার ১৩৬ জন। এছাড়া ইতালিতে ৪৬৩, ইরানে ২৯১, দক্ষিণ কোরিয়ায় ৫৪, ফ্রান্সে ৩০, স্পেনে ২৮, যুক্তরাষ্ট্রে ২৬, জাপানে ১৬, ইরাকে ৭, যুক্তরাজ্যে ৫, হংকংয়ে ৩, অস্ট্রেলিয়ায় ৩, জার্মানিতে ২ জন। ফিলিপাইন, সুইজারল্যান্ড, নেদারল্যান্ডস, আর্জেন্টিনা, মিসর, তাইওয়ান, থাইল্যান্ড এবং কানাডায় একজন করে মারা গেছেন। খবর বিবিসি, সিএনএন, সিনহুয়া ও রয়টার্সের।

চীনে সোমবার আক্রান্ত আরেকজন চিকিৎসকের মৃত্যু হয়েছে। অপরদিকে আক্রান্তের সংখ্যা কমতে থাকায় উহানের অধিকাংশ অস্থায়ী হাসপাতালের কার্যক্রম বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। এ পরিস্থিতিতে দেশটির প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং উহান পরিদর্শন করেছেন। চীনের ভাইরাস আক্রান্ত ৭০ শতাংশ মানুষ চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়ে উঠেছে। চীনে এ পর্যন্ত প্রায় ৬০ হাজার মানুষ করোনামুক্ত হয়েছেন। জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশন (এনএইচসি) জানিয়েছে সোমবার দেশটিতে করোনাভাইরাসে নতুন করে মাত্র ১৯ জন আক্রান্ত হয়েছে। এদিন ১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। সোমবার পর্যন্ত চীনে করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা ৩১৩৬ জনে ও মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৮০ হাজার ৭৫৪ জনে দাঁড়িয়েছে।

চীনের বাইরে বিভিন্ন দেশ ও অঞ্চলে মৃতের সংখ্যা ৮৮২ এবং আক্রান্তের সংখ্যা ৩২ হাজার ২৫৫-এ পৌঁছে গেছে। পুরো দেশে চলাচলের ওপর কড়াকড়ি আরোপের পাশাপাশি জনসমাগম নিষিদ্ধ করেছে ইতালির সরকার। এর ফলে দেশটির সাড়ে ছয় কোটি মানুষ কার্যত অবরুদ্ধ অবস্থার মধ্যে পড়েছে। সরকারি তথ্য অনুযায়ী, সোমবার ইতালিতে করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৪৬৩ জন হয়েছে। আক্রান্তের সংখ্যা ৯ হাজার ১৭২ জনে দাঁড়িয়েছে। চীনের মূল ভূখণ্ড বাদ দিলে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা ইতালিতেই সবচেয়ে বেশি। সোমবার দক্ষিণ কোরিয়ার নতুন করে আক্রান্ত হয়েছে ১৩১ জন। এতে দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে সাত হাজার ৫১৩ জনে। এদিন তিনজনের মৃত্যু হওয়ায় এখানে মৃতের সংখ্যা ৫৪ জনে দাঁড়িয়েছে।

চীনে এ পর্যন্ত ৮০ হাজারের বেশি মানুষ নভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে আর মারা গেছেন তিন হাজার ১৩৬ জন। তবে আশার কথা, দেশটিতে ভাইরাস আক্রান্ত ৭০ শতাংশ মানুষই চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়ে উঠেছেন। এ পর্যন্ত প্রায় ৬০ হাজার মানুষ করোনামুক্ত হয়েছেন। সোমবার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) প্রধান ড. টেড্রস আধানম গেব্রেয়েসুস বলেন, ‘ভাইরাসটি ইতিমধ্যে অনেক দেশেই পা রেখেছে। এটি প্যানডেমিকে (মহামারীর চেয়ে বড় সংকট) পরিণত হওয়ার হুমকি এখন সত্য হতে চলেছে।

উহানে চীনের প্রেসিডেন্ট শি : বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাস সংক্রমণের উৎসস্থল উহান সফর করেছেন চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাব শুরুর পর এই প্রথম তিনি সেখানে গেলেন। গত বছরের শেষদিকে চীনের হুবেই প্রদেশের রাজধানী এই উহান শহরের একটি সি-ফুড মার্কেট থেকেই নতুন ধরনের ভাইরাসটির সংক্রমণ ছড়ানো শুরু হয়েছিল বলে ধারণা করা হয়।

আরও তিন মাস তাণ্ডব চালাবে করোনাভাইরাস! : করোনায় পুরো বিশ্বে আতঙ্ক বিরাজ করার মধ্যে দুঃসংবাদ দিলেন চীনের প্রধান রোগ বিশেষজ্ঞ এবং সার্স (সিভিয়ার অ্যাকিউরিটি রেসপিরেটিরি সিনড্রোম) ভাইরাসের আবিষ্কারক বিশিষ্ট বিজ্ঞানী ঝং নানশান। তিনি জানান, আরও তিন মাস (আগামী জুন পর্যন্ত) এ ভাইরাস তাণ্ডব চালাবে। চীনের গুয়াংডাং টিভি চ্যানেলকে দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি এ কথা জানান।

প্রতিষেধক বাজারে আসতে আরও ৬ মাস লাগবে : বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস নিরাময়ে এখনও কার্যকর কোনো প্রতিষেধক আবিষ্কার হয়নি। বিজ্ঞানীরা প্রতিষেধক আবিষ্কারের জন্য আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। চীনের ক্লিনিক্যাল গবেষণা সংস্থাগুলো বলেছে, আগামী ছয় মাসের মধ্যে এ রোগ নিরাময়ের ওষুধ বাজারে আসতে পারে। চীনে এক হাজারেরও বেশি ক্লিনিক্যাল গবেষণা সংস্থা (সিআরও) রয়েছে, যারা ক্লিনিক্যাল গবেষণার শীর্ষে ড্রাগ সংস্থাগুলোকে প্রতিনিধিত্ব করে। তারা সবাই একযোগে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

ফ্রান্সের সংস্কৃতিমন্ত্রী আক্রান্ত : করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ফ্রান্সের সংস্কৃতিমন্ত্রী ফ্রঁক রিয়েস্তা। ফ্রান্সের সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানান, রোববার সংক্রমণ ধরা পড়ার পর থেকে তিনি নিজেকে গৃহবন্দি করে রেখেছেন। সোমবার ২৮৬ জন নতুন রোগী শনাক্ত হওয়ার পর ফ্রান্সে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৪১২ জনে। সেখানে এ পর্যন্ত ৩০ জন এ রোগে মারা গেছেন।

করোনা ক্ষতিগ্রস্তরা ক্ষতিপূরণ পাবে হোয়াইট হাউসের ব্রিফিং : যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ ব্রিফিং করছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প, ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স ও করোনাভাইরাস টাস্কফোর্সের সদস্যরা। মঙ্গলবার হোয়াইট হাউসে তারা ব্রিফিং করেন। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেন, হোয়াইট হাউস প্রশাসন, কংগ্রেস এবং বিভিন্ন ব্যবসায়ী সংস্থার সঙ্গে বৈঠকে নিশ্চিত হয়েছে যে, জরুরি অবস্থার অবতারণা হলে যুক্তরাষ্ট্রের যে কর্মী এবং শ্রমিকরা ঘণ্টা হিসেবে কাজ করেন তারা বেতন থেকে বঞ্চিত হবেন না। তিনি বলেছেন, তার প্রশাসনের সদস্যরা সম্ভাব্য বেতন-শুল্ক কর নিয়ে কংগ্রেসের সঙ্গে কথা বলবেন। পাশাপাশি করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে বিমান সংস্থা, ক্রুজ সংস্থা, হোটেল কোম্পানি ও পর্যটন শিল্পের সঙ্গে প্রশাসন কাজ করে যাচ্ছে। সরকার আশা করছে, এ সপ্তাহের মধ্যেই গড়ে প্রতি সপ্তাহে চার মিলিয়নের মতো টেস্টিং কিট স্বাস্থ্য সংস্থাগুলোতে সরবরাহ করতে পারবে।

ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেনস বলেন, প্রশাসন জনগোষ্ঠীকে এই সংকট থেকে সব ধরনের সমাধান দেয়ার জন্য নতুন নির্দেশিকা প্রকাশ করেছে। ব্রিফিংয়ে বলা হয়, এ পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে করোনাভাইরাসে ৬০০-এর ওপর সংক্রমণ এবং ২০-এর অধিক মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

ট্রাম্পের করোনাভাইরাস পরীক্ষা হয়নি : যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের দেহে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঘটেছে কিনা তা পরীক্ষা করে দেখা হয়নি বলে জানিয়েছে হোয়াইট হাউস। মার্কিন কংগ্রেসের দুই রিপাবলিকান সদস্য টেক্সাসের সিনেটর টেড ক্রুজ ও অ্যারিজোনার রিপ্রেজেন্টেটিভ পল গোসার, নভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত এক রোগীর সংস্পর্শে আসার পর নিজেরাই কোয়ারেন্টিনে থাকার ঘোষণা দিয়েছেন। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প সম্প্রতি ওই দু’জনের সংস্পর্শে এসেছিলেন। করোনায় আক্রান্ত সন্দেহে নিজ থেকে কোয়ারেন্টিন বেছে নিয়েছেন রিপাবলিকান পার্টির পাঁচ নেতা।

সম্প্রতি এক সম্মেলনে করোনা আক্রান্ত এক ব্যক্তির সংস্পর্শে আসার পর কোয়ারেন্টিনে যান তারা। তাদের মধ্যে টেক্সাসের রিপাবলিকান সিনেটর টেড ক্রুজ, আরিজোনার কংগ্রেসম্যান পল গোসার, জর্জিয়ার কংগ্রেসম্যান ডওগ কলিনস ও ফ্লোরিডার কংগ্রেসম্যান ম্যাট গায়িটজ রয়েছেন। তারা প্রত্যেকেই ১৪ দিনের জন্য কোয়ারেন্টিনে গেছেন। এদিকে এক ডেমোক্রেট নেত্রীও ভিন্ন এক করোনা আক্রান্ত ব্যক্তির সংস্পর্শে আসার পর নিজ থেকে কোয়ারেন্টিন বেছে নিয়েছেন।

ব্রিটিশ-বাংলাদেশির মৃত্যু : করোনায় যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত এক বৃদ্ধের মৃত্যু হয়েছে। ম্যানচেস্টারে বসবাসরত ওই ব্যক্তি সম্প্রতি ইতালি ঘুরে এসেছিলেন। ষাট বছর বয়সী ওই ব্যক্তি নানা ধরনের স্বাস্থ্যগত জটিলতায় ভুগছিলেন। তিনি নর্থ ম্যানচেস্টার জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

জার্মানিতে প্রথম মৃত্যু : জার্মানিতে করোনায় আক্রান্তদের মধ্যে দু’জনের মৃত্যুর খবর দিয়েছে দেশটির স্বাস্থ্য দফতর। জার্মানিতে এটাই প্রথম মৃত্যুর ঘটনা।

সিউলের এক অফিসে ৫০ জন করোনায় আক্রান্ত : দক্ষিণ কোরিয়ার রাজধানী সিউলের একটি কল সেন্টার থেকে ৫০ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে ৪৬ জন কর্মী, বাকি চারজন আক্রান্তদের পরিবারের সদস্য। দেশটির স্বাস্থ্যবিষয়ক কর্তৃপক্ষ মঙ্গলবার এ তথ্য জানায়। এর মাধ্যমে দেশটিতে একক কোনো ঘটনায় এত সংখ্যক মানুষ প্রাণঘাতী ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হল। দেশটিতে সাড়ে সাত হাজার মানুষ কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত হয়েছেন।

নাগরিকদের দেশে ফিরতে ৭২ ঘণ্টার সময় দিয়েছে সৌদি আরব : করোনা আতঙ্কে কাঁপছে মধ্যপ্রাচ্য। যেসব নাগরিক সংযুক্ত আরব আমিরাত ও বাহরাইনে অবস্থান করছেন তাদের দেশে ফেরার জন্য ৭২ ঘণ্টা বা তিন দিন সময় বেঁধে দিয়েছে সৌদি সরকার। এ সময়ের মধ্যে তারা বিমান বা বিকল্প যে কোনো পন্থায় দেশে ফিরতে পারবেন। মঙ্গলবার সৌদি আরবের কনসুলেটগুলো এ ঘোষণা দেয়।

বাংলাদেশের সঙ্গে সীমান্ত বন্ধ ঘোষণা মিজোরামের : করোনা আতঙ্কে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে উত্তর-পূর্ব ভারতের বাংলাদেশ ও মিয়ানমার সীমান্তবর্তী রাজ্যগুলো আন্তর্জাতিক সীমান্ত বন্ধ রাখার ঘোষণা দিয়েছে। মিজোরাম সরকার সোমবার বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের সঙ্গে সীমান্ত বন্ধ করে দিয়েছে। ফলে প্রতিবেশী দুই দেশ থেকে কোনো নাগরিককেই এই রাজ্যের আন্তর্জাতিক সীমান্ত অতিক্রম করে ভারতে আসতে দেয়া হচ্ছে না। বাংলাদেশের সঙ্গে মিজোরামের ৩১৮ কিলোমিটার সীমান্ত রয়েছে। আর মিয়ানমারের সঙ্গে রয়েছে ৫১০ কিলোমিটার সীমান্ত।

ইরানে ২৪ ঘণ্টায় প্রাণ গেল ৫৪ জনের : ইরানে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আরও ৫৪ রোগী মারা গেছে। এতে ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ২৯১ জনে। আর আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৮০৪২ জনে। মঙ্গলবার দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র কিয়ানুশ জাহানপুর এসব তথ্য জানান।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply