হঠাৎ উদ্বেগ ও দুশ্চিন্তা কমাবে অ্যারোবিক ব্যায়াম

|

অল্প কারণেই উদ্বিগ্ন বা দুশ্চিন্তাগ্রস্ত হয়ে পড়া মানুষের সংখ্যা কম নয়। অতি উদ্বেগের কারণে নানা মানসিক রোগে ভোগা মানুষের সংখ্যা অনেক। তবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন হঠাৎ উদ্বেগ ও দুশ্চিন্তা কমাবে ব্যায়াম।

এছাড়া অতিরিক্ত উদ্বেগ ও দুশ্চিন্তার কারণে দৈনন্দিন জীবনে সমস্যা দেখা দিলে চিকিৎসকের পরামর্শের পাশাপাশি কিছু ব্যায়াম করলে উপকার পাওয়া সম্ভব। এ ক্ষেত্রে অ্যারোবিক ব্যায়াম বেশ উপকারী।

অ্যারোবিক ব্যায়ামে মাংসপেশি শিথিল হয়, শরীরে রক্তের প্রবাহ ত্বরান্বিত হয়। মস্তিষ্কে রক্তের প্রবাহ বাড়ায় দুশ্চিন্তা বা উদ্বেগ কমে যায়।

বিভিন্ন ধরনের অ্যারোবিক ব্যায়ামের মধ্যে সাইকেল চালানো, নাচ, জগিং, দৌড়ানো, সাঁতার কাটা উল্লেখযোগ্য। তবে যাঁরা নতুন ব্যায়াম শুরু করবেন, অথবা হৃদ্‌রোগ বা অন্য কোনো শারীরিক সমস্যা রয়েছে, তাদের ব্যায়াম শুরুর আগে একজন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নেয়া জরুরি।

ব্যায়াম শুরুর আগে ওয়ার্মআপ প্রয়োজন। ঢিলেঢালা পোশাক পরা এবং আরামদায়ক জুতা পরতে হবে। এমন কিছু ব্যায়াম বাড়িতেই করা যায়।

ধরা যাক জগিং এর কথা। এটি খুবই সহজ একটি ব্যায়াম। ঘরের মধ্যে একটি ম্যাটে শুয়ে ধীরে ধীরে ডান ও বাঁ পা ওঠানামা করুন। কিছুক্ষণ পর থেকে এই ওঠানামা দ্রুত করতে থাকুন। এভাবে ১০ থেকে ৩০ মিনিট পর্যন্ত করতে পারেন। তবে ব্যায়ামের সময় ধীরে ধীরে বাড়ানো উচিত।

এরপর আছে জগিং জাম্প। এটা করতে দুই পা ফাঁকা করে দাঁড়ান। এবার দুই হাত ওপরে তুলে লাফ দিন। জগিং জাম্পে ১০ মিনিটে ১০০ ক্যালরি শক্তি খরচ হয়। ১০ থেকে ৩০ মিনিট করতে পারেন এ ব্যায়াম।

যদি আপনার শরীর সাপোর্ট দেয় তাহলে দড়ি লাফ ও করতে পারেন। মাত্র ২০ মিনিট দড়ি লাফে প্রায় ২২০ ক্যালরি শক্তি খরচ হয়। খুব সোজা ব্যায়াম হলেও এটি উচ্চমাত্রার অ্যারোবিক ব্যায়াম। ১০ থেকে ৩০ মিনিট পর্যন্ত করতে পারেন এ ব্যায়াম।

যেকোনো একটি ব্যায়াম প্রতিদিন ৩০ মিনিট করে করতে পারেন। আবার এই তিন ব্যায়াম ১০ মিনিট করে ৩০ মিনিট করতে পারেন। তবে ঘরের চেয়ে বাইরে সবুজ ঘাসে ঢাকা কোনো জায়গায় যেমন কোনো উদ্যান কিংবা অক্সিজেনসমৃদ্ধ পরিবেশে ব্যায়াম করলে উদ্বেগ কমানোর ক্ষেত্রে ভালো ফল পাওয়া পাবেন।









Leave a reply