করোনা আতঙ্কে হোলি উৎসব বর্জন করছেন মোদিসহ বিজেপির শীর্ষ নেতারা

|

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস আতঙ্কে। এরইমধ্যে ভারতে ২৮ জন করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে। করোনা আতঙ্কে হিন্দু ধর্মের অন্যতম প্রধান ধর্মীয় উৎসব হোলিতে যোগ না দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তার পদাঙ্ক অনুসরণ করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ ও বিজেপি সভাপতি জেপি নাড্ডাও।

বুধবার আলাদা টুইট বার্তায় এ কথা জানান ভারতের ক্ষমতাসীন বিজেপির শীর্ষ তিনি নেতা।

এক টুইট বার্তায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি জানান, তিনি হোলি খেলবেন না। বলেন, বিশ্ব জুড়ে যেভাবে করোনাভাইরাস বা কোভিড-১৯ ছড়িয়ে পড়ছে তা রুখতে বিশেষজ্ঞরা বড় কোনো জনসমাগম এড়িয়ে চলার পরামর্শ দিয়েছেন। তাই, এই বছর আমি কোনও হোলির মিলন উৎসবে অংশ না নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

এর পরপরই আরেক টু্‌ইট বার্তায় অমিত শাহ জানান, হোলি খুবই গুরুত্বপূর্ণ এক উৎসব আমাদের ভারতীয়দের জন্য। কিন্তু করোনাভাইরাসের দৌরাত্ম্যের মধ্যে আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি এবছর কোনও হোলি মিলন উদযাপনে অংশ নেব না। আমি সকলের কাছে প্রার্থনা করছি জনসমাবেশ এড়িয়ে চলতে এবং নিজের ও নিজের পরিবারের খেয়াল রাখতে।

এদিকে তারই ধারাবাহিকতায় নিজের টুইটারে একই কথা জানালেন বিজেপি সভাপতি জেপি নাড্ডা। নাড্ডা টুইট করে জানান, গোটা বিশ্ব নোভেল করোনাভাইরাসের সঙ্গে লড়াই করছে। সমস্ত দেশ এবং চিকিৎসা বিভাগ মিলে এর সংক্রমণ রুখতে যৌথভাবে চেষ্টা করছে। এ কথা মাথায় রেখে, আমি এবার হোলি খেলব ন‌া এবং হোলি মিলান আয়োজন করব না। নিরাপদে থাকুন, সুস্থ থাকুন।

উল্লেখ্য, গত ২৪ ঘন্টায় ভারতে করোনা ভাইরাস আক্রান্ত রোগী সনাক্ত হয়েছে ২১ জন। এর মধ্যে ১৬ জনই ইতালির পর্যটক। এ নিয়ে ভারতে মোট সংক্রমণের সংখ্যা ২৮। এখন পর্যন্ত দিল্লি, আগ্রা, হায়দ্রাবাদ ও কেরালায় মিলেছে আক্রান্ত রোগী। গত ফেব্রুয়ারীতে ইতালি থেকে ২৩ পর্যটক আসেন ভারতে। মঙ্গলবার জয়পুরে তাদের মধ্যে ১ জনের শরীরে করোনাভাইরাস সংক্রমণ ধরা পড়ে। এরপর আক্রান্ত সন্দেহে সেখান থেকে ১৫ জনকে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়। এবছর ১০ মার্চ হোলি উৎসব।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply