করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হলে মৃত্যুর শঙ্কা কতটুকু?

|

বিশ্বের ৮০ দেশে ছড়িয়ে পড়েছে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস। বিশ্বে করোনাভাইরাসে ৮০ হাজারের বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন। আর তিন হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে।

প্রাণঘাতী এই ভাইরাসের টিকা এখনও আবিষ্কৃত হয়নি। এই রোগ থেকে বাঁচার একমাত্র পথ হচ্ছে জানা ও প্রতেরোধ করা। তবে বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত কাউকে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত শনাক্ত করা যায়নি। এই ভাইরাস নিয়ে এথন মানুষের মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টি হয়েছে। তবে এখন প্রশ্ন হলো– আক্রান্ত হলেই কি মৃত্যু নিশ্চিত।

চীনের পরিসংখ্যান ঘেঁটে জানা যাচ্ছে, করোনাভাইরাসে সংক্রমণের শিকার ৪৪ হাজার মানুষের মধ্যে মধ্য বয়সীদের তুলনায় বৃদ্ধদের মধ্যে ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুহার ১০ গুণ বেশি। আর ৩০ বছরের কম বয়সীদের মধ্যে মৃত্যুহার সবচেয়ে কম। তবে যাদের ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ, হৃদরোগ বা শ্বাসকষ্ট রয়েছে, তাদের মধ্যে মৃত্যুহার পাঁচ গুণ বেশি।

বার্তা সংস্থা ইউএনবি জানাচ্ছে, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত প্রতি এক হাজার জনের মধ্যে পাঁচ থেকে ৪০ জনের মৃত্যু হতে পারে। তবে সে ধারণা কিছুটা পাল্টে গেছে। এখন প্রতি হাজারে মাত্র ৯ জনের মৃত্যু নিশ্চিত হয়। অর্থাৎ মৃত্যুহার এক শতাংশের কাছাকাছি। তবে এই ভাইরাসে মৃত্যুর বিষয়টি নির্ভর করে বয়স, লিঙ্গ ও স্বাস্থ্যগত অবস্থার ওপর।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, আক্রান্তের সংখ্যা নিশ্চিত করে বলা যায় না। কারণ মৃদু উপসর্গ হলে কেউই চিকিৎসকের কাছে যেতে চান না। লন্ডনের ইম্পেরিয়াল কলেজের এক গবেষণা বলছে, মৃদু সংক্রমণ শনাক্তের ক্ষেত্রে কিছু দেশ পারদর্শী রয়েছে। তবে তারা কোনো ব্যবস্থা নেয়নি।

তারা বলছেন, আক্রান্তের সংখ্যা ঠিকভাবে গণনা করা সম্ভব হলে মৃত্যুহার আরও বেশি হতো। তবে বিজ্ঞানীরা বলছেন, করোনাভাইরাসে বয়স্ক, অসুস্থও পুরুষরা সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হয়ে থাকে। এই রোগে পুরুষরা সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হন।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply