চার শিক্ষার্থী নিহতের ঘটনায় দুর্গাপুরে সড়ক অবরোধ, চালক গ্রেফতার

|

কামাল হোসাইন, নেত্রকোনা

নেত্রকোনার দুর্গাপুরে বালুবাহী ট্রাকের চাপায় চার শিক্ষার্থী নিহত হওয়ার প্রতিবাদে ও নিরাপদ সড়কের দাবিতে দিনভর সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছে সর্বস্তরের জনগণ।

রোববার সকাল ১০টা থেকে বিকেল পর্যন্ত পৌর শহরের প্রেসক্লাব মোড় এলাকায় দুর্গাপুর-শ্যামগঞ্জ মহাসড়ক অবরোধ করে এ বিক্ষোভ করে সচেতন নাগরিক সমাজ। বিক্ষোভ চলাকালে সকল প্রকার যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এতে দুর্ভোগে পড়েন সাধারণ মানুষ।

অপরদিকে উপজেলার ঝানঝাইল উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ঘণ্টাব্যাপী সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করে। কৃষ্ণেরচর উচ্চ বিদ্যালয় শিক্ষার্থী ও স্থানীয়রা রাস্তা দখল করে বিক্ষোভ করে। বিরিশিরি পিসিনল উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করে।

এদিকে বিক্ষোভ সংহতি প্রকাশ করে কবি লোকান্ত শাওন, আলকাছ উদ্দিন মীর বলেন, আর কত রক্ত দিলে বন্ধ হবে সড়কে মৃত্যুর মিছিল, প্রশাসন বারবার আশ্বাস দিলেও এখন পর্যন্ত সড়কে মৃত্যুর মিছিল থামছে না।

উত্তপ্ত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে স্থানীয় থানা পুলিশ প্রতিটি মোড়ে টহল জোরদার করে।

অতিরিক্ত দায়িত্বে থাকা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা উম্মে কুলসুম বিক্ষোভকারীদের উদ্দেশ্যে বক্তব্যে বলেন, বিক্ষোভকারী নেতৃবৃন্দকে ২মার্চ সোমবার বিকাল ৩টার দিকে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে উপস্থিত থাকার জন্য জন্য জেলা প্রশাসন থেকে বলা হয়েছে। এ সময় বিক্ষোভকারীদের শান্ত থাকতেও নির্দেশ দেন তিনি। পরে ইউএনওর আশ্বাসে বিক্ষোভকারীরা রাস্তা অবরোধ থেকে সরে আসেন।

এ বিষয়ে কথা হলে ভারপ্রাপ্ত ইউএনও উম্মে কুলসুম বলেন, আলোচনা প্রেক্ষিতে অবরোধকারীদের দাবি সমূহ মানা হবে। এ আশ্বসে তারা রাস্তা থেকে অবরোধ তুলে নেন।

দুর্গাপুর সার্কেলের এএসপি মাহমুদা শারমিন নেলী বলেন, শনিবার রাতে সড়ক দুর্ঘটনায় ৪ জন শিক্ষার্থী মারা যায়। নিহতদের পারিবারিক কবরস্থান রবিবার দুপুরে দাফন কার্যক্রম সম্পন্ন হয়েছে। নিহতদের সংশ্লিষ্ট স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান নিহতদের পরিবারের লোকজনদের সাথে নিয়ে দুর্গাপুর থানায় মামলা দায়ের করবেন। এছাড়া ঘাতক ট্রাক ও চালককে আটক করেছে পূর্বধলা থানা পুলিশ।

উল্লেখ্য যে, শনিবার রাত নয়টার দিকে দুর্গাপুর উপজেলার কালা মার্কেট (শান্তিপুর) বালুবাহী ট্রাকচাপায় পিকআপ ভ্যানে থাকা ৪ শিক্ষার্থী মারা যায়।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply