বিচারপতি পাল্টাতেই পাল্টে গেল রায়, পুলিশের সুপারিশে ছাড় পেল বিজেপি নেতারা

|

সিএএ নেয় ভারতের রাজধানী দিল্লিতে চলমান দাঙ্গায় মুসলিমদের বিরুদ্ধে উস্কানিমূলক বক্তব্যের জন্য অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে এখনই কোন মামলা দায়ের না করতে দিল্লি পুলিশের আবেদনে সাড়া দিল দিল্লি হাইকোর্ট। খবর ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভি’র।

বৃহস্পতিবার দিল্লি হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি ডিএন পটেল ও বিচারপতি সি হরিশঙ্করের বেঞ্চ মামলা দায়ের না করে আরও ৪ সপ্তাহের সময় দিল বক্তব্য পর্যবেক্ষণে।

দিল্লির আদালতে পুলিশ জানায়, উস্কানিমূলক মন্তব্যের জন্য ব্যবস্থা নেওয়ার মতো পরিস্থিতি নেই, বরং মামলা করলে হিতে বিপরীত হতে পারে।

এরআগে বুধবার দিল্লির সহিংসতায় উস্কানিমূলক বক্তব্যের জন্য বিজেপি নেতাদের বিরুদ্ধে এফআইআর কেন হয়নি এমন প্রশ্ন তোলার সাথে সাথেই দিল্লি হাইকোর্ট থেকে বদলি করে দেয়া হয় বিচারপতি এস মুরলীধরকে।

চলমান দিল্লি দাঙ্গায় মুসলিমদের বিরুদ্ধে উস্কানিমূলক বক্তব্য দেয়ার অভিযোগে বিজেপি নেতা কপিল মিশ্র, অনুরাগ ঠাকুর, অভয় বর্মা ও পরবেশ বর্মাদের বিরুদ্ধে কেন মামলা করা হয়নি এমন প্রশ্ন তোলেন বিচারপতি এস মুরালীধরের নেতৃত্বাধীন দুই সদস্যের বেঞ্চ। সেইসাথে অতিদ্রুত তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের নির্দেশও দেয়া হয় দিল্লি পুলিশকে।

অন্যদিকে, বিজেপি নেতাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের নির্দেশ দেয়ার পরপরই ওই দিন রাতে দিল্লি হাইকোর্টের বিচারপতি মুরলীধরকে বদলি করা হয় পঞ্জাব ও হরিয়ানা হাইকোর্টে। নিয়ম অনুযায়ী, বদলির আগে ১৪ দিন সময় পেলেও এস মুরলীধরকে কোন সময় দেয়া হয়নি।









Leave a reply