অবসরে পাঠানো হয়েছে বিমানের পরিচালক মমিনুলকে

|

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের পরিচালক মমিনুল ইসলামকে অবসরে পাঠানো হয়েছে। মঙ্গলবার বিমানের এমডি ও সিইও মোকাব্বির হোসেন স্বাক্ষরিত এক আদেশে তাকে অবসরে পাঠানো হয়েছে।

আদেশে বলা হয়েছে, যেহেতু বিমানের পরিচালক মমিনুল ইসলাম ১৯৮৬ সালে জুনিয়র সিকিউরিটি অফিসার হিসেবে চাকরিতে যোগদান করেন এবং ইতোমধ্যে তার চাকরির মেয়াদকাল ২৫ বছর পূর্ণ হয়েছে। তাই বিমানের স্বার্থে তাকে চাকরি থেকে অবসর প্রদান করা প্রয়োজন। বিমানের গৃহীত ও অনুসৃত বাংলাদেশ বিমান করপোরেশন কর্মচারী বিধিমালা ১৯৮৮ এর বিাধ ৫(ক) অনুযায়ী তাকে চাকরি হতে অবসর প্রদান করা হলো।

অপরদিকে, প্রকল্পের টাকা আত্মসাৎ ও অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) প্রধান প্রকৌশলী সুধেন্দু বিকাশ গোস্বামীর বিরুদ্ধে তদন্ত করছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। তাকেও ‘জনস্বার্থে চাকরি থেকে অবসর’ দেয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম-সচিব জনেন্দ্রনাথ সরকারের স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, বেবিচকের প্রস্তাব মোতাবেক বেবিচকের কর্মচারী প্রবিধানমালা-১৯৮৮ এর ৫৩ প্রবিধি, সরকারি চাকরি আইন-২০১৮ (২০১৮ সালের ৫৭ নং আইন) এর ৪৫ ধারা এবং জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের এতদসংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী বেবিচকের প্রধান প্রকৌশলী সুধেন্দু বিকাশ গোস্বামীর চাকরি ২৫ বছরের ঊর্ধ্বে হওয়ায় তাকে জনস্বার্থে চাকরি থেকে অবসর দেয়া হলো।









Leave a reply