সেই পাপিয়াকে যুব মহিলা লীগ থেকে বহিষ্কার

|

অনৈতিক কর্মকাণ্ডের সাথে যুক্ত থাকার অভিযোগে দেশি-বিদেশি মুদ্রা এবং নগদ টাকাসহ র‌্যাবের হাতে আটক নরসিংদী জেলা যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক শামিমা নুর পাপিয়াকে বাংলাদেশ যুব মহিলা লীগ থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। রবিবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) যুব মহিলা লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি নাজমা আকতার ও সাধারণ সম্পাদক অপু উকিল স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, যুব মহিলা লীগের কেন্দ্রীয় কার্য নির্বাহী সংসদের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী নরসিংদী জেলা যুব মহিলা লীগের সাধারণে সম্পাদক শামিমা নুর পাপিয়াকে গঠন তন্ত্রের ২২ (ক) উপধারা অনুযায়ী দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে আজীবনের জন্য বহিষ্কার করা হলো। এই সিদ্ধান্ত অবিলম্বে কার্যকর হবে।

উল্লেখ্য, শনিবার (২২ ফেব্রুয়ারি) নরসিংদী জেলা যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক শামিমা নুর পাপিয়া ও তার স্বামীসহ চার জনকে আটক করে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন র‌্যাব। এসময় তাদের কাছ থেকে জাল টাকা, নগদ টাকাসহ দেশি-বিদেশি মুদ্রা উদ্ধার করা হয়।

ব্রিফিংয়ে র‍্যাব জানায়, গাড়ির ব্যবসার আড়ালে তিনি অবৈধ অস্ত্র, মাদক ব্যবসা ও চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন অনৈতিক কর্মকাণ্ডের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন পাপিয়া। সমাজসেবার নামে তিনি নরসিংদীর অসহায় নারীদের অনৈতিক কাজে লিপ্ত করে আসছিলেন। অধিকাংশ সময় তিনি নরসিংদী ও রাজধানীর বিভিন্ন বিলাসবহুল হোটেলে অবস্থান করেন। সেখানে তার ও তার স্বামীর ব্যবসায়িক অংশীদারদের অসামাজিক কার্যকলাপের জন্য নারী সবরবরাহ করাই ছিল তার মূল কাজ।

র‍্যাবের পক্ষ থেকে আরও জানানো হয়, হোটেল ওয়েস্টিনের ২১-তলার প্রেসিডেন্ট কক্ষটি গত নভেম্বর মাসে ভাড়া নেন পাপিয়া। তিনি গত তিন মাসে ওই কক্ষের ভাড়া পরিশোধ করেছেন প্রায় ৮৮ লাখ টাকা। ১৯ তলায় একটি বার রয়েছে, যেটি তিনি পুরোটাই বুক করে নিতেন। সেখানে প্রতিদিন তিনি আড়াই লাখ টাকা মদের বিল পরিশোধ করতেন। সব মিলিয়ে দেখা যায়, গত তিন মাসে তিনি প্রায় তিন কোটি টাকা বিল পরিশোধ করেছেন হোটেল কর্তৃপক্ষকে।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply