যে কারণে পাকিস্তানের সম্মানসূচক নাগরিকত্ব পাচ্ছেন ড্যারেন সামি

|

পাকিস্তানের মাটিতে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে ফিরিয়ে আনতে বড় অবদান রাখায় ২০১৬ টি-২০ বিশ্বকাপজয়ী ওয়েস্ট ইন্ডিজ অধিনায়ক ড্যারেন সাকিকে সম্মানসূচক নাগরিকত্ব ও পাকিস্তানের সর্বোচ্চ বেসামরিক পদন নিশান-ই-পাকিস্তান দিচ্ছে পাকিস্তান সরকার।

পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি এহসান মানির নিকট পিএসএল-এ তার দল পেশোয়ার জালামির মালিক জাভেদ আফ্রিদির করা এমন প্রস্তান পাশ করেন পাকিস্তানের রাষ্ট্রপতি আরিফ আলভি।

পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড জাভেদ আফ্রিদির এই প্রস্তাব সরকারের কাছে উত্থাপন করে এবং সরকার এটাকে পাকিস্তানের ক্রিকেটে ‘অমূল্য এক অবদান’ হিসেবে স্বীকৃতি দেয়।

২৩শে মার্চ ইসলামাবাদে পাকিস্তানের রাষ্ট্রপতির হাত থেকে সম্মাননা পাবেন ২০১৬ টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপজয়ী ড্যারেন স্যামি।

জাভেদ আফ্রিদি বলেন, স্যামি যখন পাকিস্তানের ক্রিকেটে অবদান রাখেন তখন তার কোনো স্বার্থ ছিল না। আমরা সেটার একটা কৃতজ্ঞতা হিসেবে এই সম্মাননা দিতে চাইছি স্যামিকে।

২০১৬ সাল থেকে এই দলের হয়ে পাকিস্তান সুপার লিগে খেলছেন স্যামি। পিএসএলের দ্বিতীয় মৌসুমেই তিনি অধিনায়কের দায়িত্ব পান।

এরআগে, পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড যখন পাকিস্তান সুপার লিগের ফাইনাল পাকিস্তানে আয়োজন করার পরিকল্পনা করে তখনই পাকিস্তানে যাওয়ার ব্যাপারে সবার আগে রাজি হন ড্যারেন স্যামি।

২০১৭ সালের সেপ্টেম্বর মাসে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের বিশ্ব একাদশ তিনটি টি টোয়েন্টি ম্যাচ খেলে পাকিস্তানে। তখন ড্যারেন স্যামি অন্যান্য দেশের সফরকারীদের সাথে কথা বলেন ও পাকিস্তানে যাওয়ার ব্যাপারে উৎসাহী করে তোলে।

ক্রেডিট: বিবিসি বাংলা





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply