যুক্তরাষ্ট্রকে আর সহায়তা না করার হুমকি পাকিস্তানের

|

সন্ত্রাসবাদবিরোধী মার্কিন অভিযানে আর কোনো সহায়তা করবে না ইসলামাবাদ। বছরের প্রথম টুইট বার্তায় প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প পাকিস্তানকে ‘মিথ্যবাদী ও প্রতারক’ আখ্যা দেয়ার পাল্টা প্রতিক্রিয়ায় এমন হুমকি দিলো পাকিস্তান। ট্রাম্পের টুইটের প্রতিবাদে ইসলামাবাদে মার্কিন রাষ্ট্রদূতকে তলব করেছে দেশটি।

এদিকে টুইটারে বিষোদগারের কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে পাকিস্তানের জন্য বরাদ্দকৃত সাড়ে ২৫ কোটি ডলারের সামরিক সহায়তা আটকে দিয়েছে হোয়াইট হাউস।

সন্ত্রাসবাদবিরোধী অভিযানের সহায়তায় বরাবরই পাকিস্তানের জন্য থাকে যুক্তরাষ্ট্রের আলাদা তহবিল। তবুও দেশটিতে আল-কায়েদার মতো জঙ্গি সংগঠনগুলোর দৌরাত্ম কমছেই না। এ নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে দু’দেশের মধ্যে টানাপোড়েন লেগেই আছে। ট্রাম্প ক্ষমতায় আসার পর তা আরো বেড়েছে।

এর ধারাবাহিকতায়ই গতকাল টুইট করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। বলেছেন, মিথ্যার আশ্রয় নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের কাছ থেকে ১৫ বছরে ৩ হাজার ৩০০ কোটি ডলার হাতিয়ে নিয়েছে পাকিস্তান। একইসাথে দেশটিকে সন্ত্রাসের স্বর্গরাজ্য আখ্যা দিয়ে ট্রাম্প বলেন, মার্কিন নেতৃত্বকে ইসলামাবাদ বোকা ভাবছে।

এর প্রতিক্রিয়ায় পাকিস্তান জানিয়েছে, মার্কিন সন্ত্রাসবাদবিরোধী অভিযানে আর কোন সহায়তা করবে না তারা।

পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী খাজা আসিফ বলেন, ‘সন্ত্রাসবাদ দমন অভিযান যুক্তরাষ্ট্রকে দেয়া আমাদের একধরণের সেবা। যার পরিবর্তে আমরা টাকা উসুল করেছি। কেননা তারা পাকিস্তানের ভূখণ্ড, আকাশ ও রেলপথ ব্যবহার করছে। এখন ওয়াশিংটন যদি চায় তাহলে পাই-পাই হিসাব দিতে আমরা প্রস্তুত। একইসাথে শুধু যুক্তরাষ্ট্র নয়, কোন দেশের জন্যেই আমরা আর সহযোগিতামূলক কাজ করবো না।’

ডিজিআইএসপিআর কর্মকর্তা মেজর জেনারেল আসিফ গফুর বলেন, ‘আমরা যথেষ্ট ছাড় দিয়েছি, আর নয়। এবার পাকিস্তান সেনাবাহিনী যা করবে শুধু দেশের জন্যেই করবে। যে সামরিক সহায়তার কথা বলছে যুক্তরাষ্ট্র, তা কেবল আমাদের জন্য নয় বরং আফগানিস্তান ও সন্ত্রাসবাদবিরোধী জোটের জন্য বরাদ্দ ছিলো।’

এদিকে ট্রাম্পের বক্তব্যকে স্বাগত জানিয়েছে প্রতিবেশী ভারত ও আফগানিস্তান। ভারতের প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের মুখপাত্র জিতেন্ত্র সিং বলেন, ‘মোদি প্রশাসনের সন্ত্রাসবাদ বিরোধী অবস্থানের সাথে এতোদিনে একমত হলো মার্কিন সরকার। আমরা বরাবর বলে আসছি, সীমান্তে জঙ্গি অনুপ্রবেশের জন্য দায়ী প্রতিবেশী রাষ্ট্র। এবার ট্রাম্পই বললেন, পাকিস্তান সন্ত্রাসবাদের স্বর্গরাজ্য।’

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের টুইটের কয়েক ঘণ্টা পরই হোয়াইট হাউসের বিবৃতিতে বলা হয়, সন্ত্রাসী ও জঙ্গি নির্মূল না করা পর্যন্ত স্থগিত করা হলো পাকিস্তানের জন্য বরাদ্দকৃত সাড়ে ২৫ কোটি ডলার। গত বছর দেশটির জন্য মার্কিন কংগ্রেসে পাস হওয়া ১১০ কোটি ডলারের তহবিলের অংশ এটি।

যমুনা অনলাইন: আরএস/কিউএস

 









Leave a reply