বিসিবির চুক্তি থেকে বাদ সব্বির, তামিমকে জরিমানা

|

শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে ৬ মাসের জন্য ঘরোয়া ক্রিকেটে নিষিদ্ধের পাশাপাশি কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে বাদ দেয়া হয়েছে সাব্বির রহমানকে। আর বিপিএলে কিউরেটর নিয়ে মন্তব্যের জন্য তামিম ইকবালকে ৫ লাখ টাকা জরিমানা করেছে বিসিবি। সোমবার এক সংবাদ সম্মেলনে বিষয়টি উল্লেখ করেন বিসিবির সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।

বিগত দুই বছর ধরে বিতর্কের বাইরে যেতে পারছিলেন না জাতীয় দলের ব্যাটসম্যান সাব্বির রহমান। সদ্য সমাপ্ত বিপিএলে আম্পায়ারকে গালি দিয়ে গুনেছেন দেড় লাখ টাকা আর তার আগের বিপিএলে নারী কেলেঙ্কারিতে ১৩ লাখ টাকা জরিমানা করা হয় তাকে। ঘরোয়া ক্রিকেটের পাশাপাশি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটেও আচরণবিধি লঙ্গনের দায়ে অভিযুক্ত হয়েছেন একাধিক বার। ২০১৬ সালে আফগানিস্তান ও ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দুটি সিরিজে শাস্তি পান সাব্বির। আম্পায়ারের সঙ্গে অসদাচরণ করায় আফগানিস্তানের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডেতে ৩০ শতাংশ জরিমানাসহ তার ঝুলিতে যোগ হয় দুটি ডিমেরিট পয়েন্ট। ইংল্যান্ড সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে ম্যাচ ফির ২০ শতাংশ জরিমানা দিতে হয় তাকে।

তবে তা থেকে কোনো শিক্ষা না নিয়ে আবারও বিতর্কিত আচরণের দায়ে বিসিবির কেন্দ্রীয় চুক্তির থেকে বাদ পড়ার পাশাপাশি ৬ মাস নিষিদ্ধ  হয়েছেন ঘরোয়া ক্রিকেট থেকে এই ব্যাটসম্যান । সামনে বড় ধরনের আর্থিক জরিমানার সুপারিশও করা হয়েছে বিসিবির শৃঙ্খলা কমিটির সভায়।

রাজশাহীতে জাতীয় ক্রিকেট লিগের শেষ রাউন্ডে ঢাকা মেট্রোর বিপক্ষে রাজশাহীর হয়ে খেলছিলেন সাব্বির। ফিল্ডিং করার সময় এক কিশোর স্লেজিং করে তাকে। পরে মাঠ থেকে বের হয়ে সেই দর্শকের গায়ে হাত তোলার অভিযোগ এসেছে তার বিরুদ্ধে। বিষয়টি আম্পায়াদের নজরে এলে ম্যাচ রেফারির কাছে আনুষ্ঠানিকভাবে অভিযোগ করা হয়। ম্যাচ রেফারি শওকাতুর রহমান চিনু তা জানতে চাইলে তিনি তাকে হুমকি দেন। পরবর্তীতে ম্যাচ রিপোর্টে বিষয়টি বোর্ডে জানিয়েছেন ম্যাচ রেফারি।

ম্যাচ রেফারির অভিযোগ আমলে এনেছে বিসিবি’র শৃঙ্খলা কমিটি। শাস্তিস্বরূপ এক বছরের জন্য বিসিবির কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে বাদ পড়েছেন সাব্বির। অর্থাৎ ২০১৮ সালে কোনো মাসিক বেতন-ভাতা পাবেন না তিনি। পাশাপাশি ৬ মাসের জন্য নিষিদ্ধি হয়েছেন ঘরোয়া ক্রিকেট থেকে অর্থাৎ খেলতে পারবেন না ২০১৮ সালের ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply