এক বছরে ১৩৭ মার্কিন বিমান সেনার আত্মহত্যা

|

যুক্তরাষ্ট্রের বিমানবাহিনীতে আত্মহত্যার সংখ্যা বাড়ছে। গত বছর (২০১৯ সালে) দেশটির ১৩৭ বিমান সেনা আত্মহত্যা করেছে, যা আগের বছরের চেয়ে শতকরা ৩৩ ভাগ বেশি।

যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক বাহিনীর ওয়েবসাইট মিলিটারিডটকমের এক রিপোর্টে এ তথ্য উঠে এসেছে। তবে কী কারণে আত্মহত্যার ঘটনা বেড়েছে, সেটা স্পষ্ট করে বলা হয়নি।

বিশ্লেষকদের মতে, দেশে দেশে যুক্তরাষ্ট্রের অন্যায় যুদ্ধে বিবেকের দংশনে জর্জরিত হয়ে আর মানুষ হত্যার মর্মপীড়ায় সেনারা শেষ আশ্রয় খুঁজছেন মৃত্যুর কাছে।

মার্কিন সরকারি নথি ঘেঁটে উঠে এসেছে এমনই কিছু চাঞ্চল্যকর তথ্য। যদিও মার্কিন সামরিক বাহিনীর সক্রিয় সদস্যদের আত্মহত্যার তথ্য প্রকাশ করতে চায় না কোনো মহলই। তবে মিলিটারিডটকমের রিপোর্টে প্রতিবছরই সেনা আত্মহত্যার আপডেট জানানো হয়।

মার্কিন বিমানবাহিনীর ডেপুটি চিফ অব স্টাফ ফর ম্যানপাওয়ার, পার্সোনাল অ্যান্ড সার্ভিসেস লেফটেন্যান্ট জেনারেল ব্রায়ান কেলি বলেন, আত্মহত্যার ঘটনা জাতীয় জটিল সমস্যা হিসেবে দেখা দিয়েছে, যার কোনো সহজ সমাধান নেই।

তিনি বলেন, ২০০৮ সাল থেকে আত্মহত্যার ঘটনা রেকর্ড করা শুরু হয় এবং এরপর থেকে ২০১৯ সালে সবচেয়ে বেশি আত্মহত্যার ঘটনা রেকর্ড করা হয়েছে।

মার্কিন সেনাবিষয়ক সংবাদমাধ্যম মিলিটারিডটকমের হিসাবে ২০১৮ সালের শেষ তিন মাসেই প্রায় তিনশ’ মার্কিন সেনা আত্মহত্যা করেছেন। অর্থাৎ প্রতিমাসে প্রায় একশ জন।

মার্কিন সামরিক বাহিনী সেনাদের আত্মহত্যার কোনো খবর প্রকাশ করে না। এ বিষয়ে করা প্রতিবেদনগুলো নিয়ে কঠোর গোপনীয়তা অবলম্বন করা হয়। তবে সম্প্রতি একটি সূত্রের কাছ থেকে মিলিটারি ডটকমের কাছে ২০১৮ সালের শেষ তিন মাসের তথ্য চলে আসে।

মিলিটারিডটকম জানিয়েছে, প্রকাশ হওয়া ওই নথি বলছে, গত বছরের শেষ তিন মাসে ২৮৬ জন সেনা আত্মহত্যা করেছে। এর মধ্যে মেরিন ৫৭ জন, নাবিক ৬৮ জন, ৫৮ জন মার্কিন বিমানবাহিনী এবং ১০৩ জন সরাসরি মার্কিন সেনাবাহিনীর সঙ্গে যুক্ত বলে জানা গেছে।









Leave a reply