দক্ষিণ আফ্রিকায় করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের মধ্যে ফ্লু ভ্যাকসিন গ্রহণের আহ্বান সরকারের

|

যুক্তরাজ্য, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া, জার্মানি, অস্ট্রেলিয়া, বতসোয়ানা এবং নামিবিয়াসহ চীনের বাইরে প্রায় ১০০টি করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগী সনাক্ত হওয়ায় পর দক্ষিণ আফ্রিকার বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ও দেশটির স্বাস্থ্য অধিদফতর প্রিটোরিয়ায় সম্প্রতি এক জরুরি সভায় মিলিত হয়ে সকল দক্ষিণ আফ্রিকান ও দক্ষিণ আফ্রিকায় বসবাসকারী সকল নাগরিকদের ফ্লুর মতো লক্ষণ এবং করোনাভাইরাস সংক্রমণের সন্দেহ থেকে নিজেকে রক্ষা করতে ফ্লু টিকা নেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

বৈঠকে তারা বলেছেন এটি চীনের বাইরে প্রথম নিশ্চিত হওয়া মারাত্মক কেস যা গতকাল বতসোয়ানাতে ধরা পড়েছে। যেখানে দক্ষিণ আফ্রিকার দুরত্ব বতসোয়ানা থেকে মাত্র ৬০ কি.মি.।

তাই আমাদেরকে সর্তকতা অবলম্বন করতে হবে। বৈঠকে নেট কেয়ার মেডিক্রস থেকে ডা. পিট ভিনসেন্ট বলেছেন, বিদেশ ভ্রমণকারী এবং বিদেশ থেকে দক্ষিণ আফ্রিকায় আসা লোকদের অবশ্যই স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে।

এয়ারপোর্টের থার্মাল স্ক্যনার পার না হয়ে কোনো যাত্রী যাতে বের হতে না পারে সে জন্য সর্বোচ্চ দৃষ্টি রাখতে হবে এবং সবাইকে আরও সচেতন হতে হবে।

বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী দক্ষিণ আফ্রিকার সবাইকে ফ্লুর টিকা দিতে হবে যাতে তারা কমপক্ষে ফ্লুর বিরুদ্ধে সুরক্ষিত থাকে এবং এর ফলে জীবন আরও সহজ হয়ে যায়।
দক্ষিণ আফ্রিকার ৯ টি প্রভিন্সের ক্লিনিক থেকে শুরু করে সকল হাসপাতালে ফ্লুর ভেকসিন দেয়া যাবে। এ টিকা নিতে কাউকে কোনো টাকা খরচ করতে হবে না। সম্পূর্ণ ফ্রীতে এই ভ্যাকসিন নেয়া যাবে স্থানীয় হাসপাতাল ও ক্লিনিকগুলোতে।

জোহানসবার্গ এয়ারপোর্টে অতিরিক্ত ডাক্তার ও সেনাবাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। জোহানসবার্গ থেকে ৬০ কি.মি. দূরে বতসোয়ানাতে এ পর্যন্ত ৩ জন করোনাভাইরাস রোগী সনাক্ত হওয়ায় দক্ষিণ আফ্রিকা স্বাস্থ্য অধিদফতর আন্তর্জাতিক এয়ারপোর্টগুলোতে সর্বোচ্চ নজরদারি বাড়াতেই সেনাবাহিনী মোতায়েন করেছে।









Leave a reply