সোলাইমানিকে জড়িয়ে ভুয়া তথ্য দিয়ে তোপের মুখে মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট

|

যুক্তরাষ্ট্রের ৯/১১ হামলায় সন্ত্রাসীদের সহায়তা করেছেন ইরানি কমান্ডার কাসেম সোলাইমানি বলে দাবি করে মার্কিন গণমাধ্যমের তোপের মুখে পড়েছেন দেশটির ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স।

শুক্রবার এক টুইটার পোস্টে তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রে ১১ সেপ্টেম্বরে হামলা চালানো ১২ সন্ত্রাসীর ১০ জনকে আফগানিস্তানে গোপন সফরে সহায়তা করেছেন সোলাইমানি।

কিন্তু ২০০১ সালে ১২ জন না, ১৯ সন্ত্রাসী হামলা চালিয়েছেন। যদিও পেন্সের মুখপাত্র পরবর্তীতে তার বক্তব্য পরিষ্কার করতে গিয়ে বলেন, আফগানিস্তান হয়ে ভ্রমণকারী ১২ জনের নাম উল্লেখ করেছেন তিনি।

তিনি দাবি করেন, ওই এক ডজনের ভেতরে ১০ জনকে সহায়তা করেছিলেন সোলাইমানি।

কিন্তু নিউ ইয়র্ক টাইমস বলছে, ১১ সেপ্টেম্বর কমিশনের ৫৮৫-পাতার বিস্তারিত প্রতিবেদনে তৎকালীন কুদস-ফোর্সের প্রধান হতে যাওয়া কাসেম সোলাইমানির নাম উল্লেখ করা হয়নি।

তদন্তের দ্বিদলীয় কমিশন বলেছে, ৯/১১ হামলার আগে আল-কায়েদা সদস্যদের আফগানিস্তানে যাওয়া ও আসায় সহায়তা করেছে ইরান। কিন্তু ইরান কিংবা হিজবুল্লাহ এই হামলার পরিকল্পনা সম্পর্কে জানতো বলে কোনো প্রমাণ আমার পাইনি।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ইরান হয়ে ভ্রমণের সময় আল-কায়েদা সদস্যরা নিজেরাও সম্ভবত তাদের ভবিষ্যৎ অভিযান সম্পর্কে অবহিত ছিল না।

ওয়াশিংটন পোস্টের খবর বলছে, কৌশলগতভাবে বললে বলা যায় ইরান তাদের সহায়তা করেছে। কিন্তু তার মানে এই নয় যে তেহরান কিংবা সোলাইমানি জানতেন যে তারা ৯/১১ হামলায় সহায়তা করছেন।

সিএনএনকে মার্কিন নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞ পিটার বার্গেন বলেছেন, পেন্সের দেয়া তথ্যটি ভুয়া। তিনি কোথায় তা পেলেন তা বুঝা যাচ্ছে না।

সবচেয়ে বড় কথা হচ্ছে, ১১ সেপ্টেম্বরে হামলার ১৯ জনের মধ্যে ১৫ জনই সৌদি আরবের নাগরিক। সুন্নি রাজতন্ত্রের এই দেশটি শিয়া সংখ্যাগরিষ্ঠ ইরানের চিরশত্রুই বলা যায়।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply