ভাড়া নিয়ে তর্ক, চলন্ত বাস থেকে যাত্রীকে ফেলে হত্যা

|

ঈশ্বরদীর লালন শাহ ব্রিজের টোল প্লাজার কাছে চলন্ত বাস থেকে ফেলে দিয়ে এক যাত্রীকে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে (১৯ ডিসেম্বর) বৃহস্পতিবার রাতে। নিহত ব্যক্তির নাম মোঃ সুমন হোসেন। তিনি পাকশীর ঝাউতলা এলাকার মজিবুর রহমানের ছেলে।

জানা যায়, সুমন মেহেরপুর থেকে সনি পরিবহন বাসে ঈশ্বরদীতে আসতে ছিল। বাসের মধ্যে ভাড়া নিয়ে কন্ট্রাক্টরের সাথে সুমনের প্রচন্ড বাকবিতণ্ডা হয়। পথে সুমন বাস থেকে নেমে যেতে চাইলেও চালকের সহকারীরা তাকে নামতে দেয়নি এবং বাসের মধ্যেই তাকে মারধর করে বলে সুমন মোবাইলে তার বাড়িতে জানায়।

রাত ৯টায় বাসটি লালন শাহ সেতু পার হয়ে টোল প্লাজার কাছে এসে গতি কিছুটা কমিয়ে দেয়। এ সময় বাসের কন্ট্রাক্টর জোরপূর্বক চলন্ত বাস থেকে সুমনকে পিছন থেকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দিলে সুমন ওই বাসের নিচেই চাপা পড়ে।

নিহত শ্যালক শফিক জানায়, সুমনকে উদ্ধার করে প্রথমে ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসক রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করে। রাজশাহী মেডিকেলে নেওয়ার পথে রাত সাড়ে ১১টায় সুমনের মৃত্যু হয়।

পাকশী হাইওয়ে পুলিশের ট্রাফিক সার্জেন্ট আরিফুল ইসলাম জানান, ঘটনাস্থলের পাশের ভবনের সিসি টিভির ফুটেজ দেখে বাসটি সনাক্ত করা গেছে। চালকসহ বাসটি ধরতে আইন শৃংখলা বাহিনী মাঠে নেমেছে।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply