টঙ্গীতে গৃহবধূকে হত্যা, স্বামী আটক

|

গাজীপুরের টঙ্গীর সৈলারগাতি এলাকায় গত মঙ্গলবার গভীর রাতে তানজিনা আক্তার মেরিন (১৯) নামে এক গৃহবধূকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। মেরিন নেত্রকোনা জেলার পূর্বধলা থানার যুগীরগোফা এলাকার জালাল উদ্দিন ফকিরের মেয়ে। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করেছে। এঘটনায় জড়িত সন্দেহে নিহতের স্বামীসহ তিন জনকে আটক করা হয়েছে।

পুলিশ ও নিহতের বাবা জানায়, নিহত তানজিলা নন্দীপুর কারিগরি স্কুল এন্ড কলেজে কৃষি বিভাগে ডিপ্লমা কোর্সের শেষ বর্ষের ছাত্রী ছিলেন। কলেজে অধ্যয়নরত অবস্থায় ১০ মাস পূর্বে একই জেলার বারহাট্টা থানার উজানগাঁও গ্রামের মৃত আব্দুল বারেক এর ছেলে মিজানুর রহমানের সঙ্গে বিয়ে হয় তানজিনার। বিয়ের পর থেকে স্বামী ও তার পরিবারের লোকজনের সাথে সৈলারগাতি এলাকার একটি বাড়িতে ভাড়া বাসায় বসবাস করতো সে। যৌথ পরিবারের কারণে সাংসারিক বিভিন্ন খুটিনাটি বিষয় নিয়ে স্বামী ও পরিবারের অন্যান্যদের সাথে তার প্রায়ই ঝগড়া বিবাদ হতো। গত সোমবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে তার স্বামী, ভাসুর ও বড় জা’র সাথে ঝগড়া হয়। বিষয়টি সে মুঠোফোনে তার বাবাকে জানায়। পরে রাত ১২ টার দিকে তানজিনার স্বামী মিজানুর রহমান তার শশুরকে ফোনে জানায়, তানজিনা হঠাৎ করে অজ্ঞান হয়ে গেছে ডাক্তারের কাছে নিয়ে যাচ্ছে। অসুস্থ অবস্থায় তাকে টঙ্গী শহীদ আহসান উল্লাহ মাষ্টার জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

টঙ্গী পূর্ব থানার অফিসার ইনচার্জ মো.কামাল হোসেন ঘটনাটির সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে তাকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে। ময়নাতদন্ত রিপোর্ট না পেলে বিস্তারিত বলা যাবে না।









Leave a reply