স্কুলে ২২ মৌমাছির চাক, আতঙ্কে শিক্ষক শিক্ষার্থীরা

|

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি
একটি নয় দুটি নয় ২২টি বাসা বেঁধেছে মৌমাছির দল একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। বিদ্যালয়ের তিন দিকের কার্নিস থেকে শুরু করে বাদ যায়নি সিড়ির ছাদও। এদিকে মৌমাছির হুল ফোটানোর শঙ্কায় শিক্ষক শিক্ষার্থীরা। এরইমধ্যে আটজন শিক্ষার্থী শিকার হয়েছে মৌমাছির আক্রমণের। নিজেদের বাঁচাতে দরজা জানালা বন্ধ রেখে নেয়া হচ্ছে বাৎসরিক পরীক্ষা। এমনটাই ঘটেছে কুড়িগ্রাম জেলার নাগেশ্বরী উপজেলার উত্তর কচাকাটা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে।

জানা যায়, চরাঞ্চলের এ বিদ্যালয়টিতে একমাস আগে হঠাৎ করে একটি মৌমাছির চাক বসে। দিনের পর দিন বাড়তে থাকে এ চাকের সংখ্যা। এখন এ চাকের সংখ্যা বিশ ছাড়িয়েছে। শুধু তাই নয় দু একদিন পরপরই আসছে আরো নুতুন চাক।

বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা জানায়, মাঝে মধ্যেই মৌমাছি উড়ে এসে হুলফুটায় তাই তাদেরকে সবসময় ভয়ে থাকতে হয়।

শিক্ষকরা জানায়, চুপচাপ রুমে ঢুকে দরজা জানালা বন্ধ করে স্কুলে কার্যক্রম চালাতে হচ্ছে। এছাড়া আগুন দিয়ে ধোঁয়ার সৃষ্টি করে চলমান বাৎসরিক পরীক্ষা নিতে হচ্ছে। সবমিলিয়ে আতঙ্কে থাকতে হয় তাদেরকে।

বিদ্যালয়ের সহ সভাপতি তাইজুল ইসলাম জানান, যখন কম ছিলো তখন স্থানীয়ভাবে মৌমাছি তাড়ানোর চেষ্টা করেও লাভ হয়নি। এখন শিক্ষক শিক্ষার্থীদের সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply