শিশু ধর্ষণের চেষ্টাকালে হাতেনাতে ধরা, উলঙ্গ করে হাঁটালো জনতা

|

ধর্ষকদের শাস্তি নিজের হাতে তুলে নিলো সাধারণ মানুষ। ভারতের তেলেঙ্গানার পশু চিকিৎসককে ধর্ষণের পর হত্যার ঘটনায় যখন উত্তপ্ত সারা দেশ, তখনই রোববার মাত্র চার বছরের এক শিশুকন্যাকে ধর্ষণের চেষ্টা করেছিল ৩৫ বছরের এক যুবক। সাথে সাথে তাকে হাতানাতে ধরে ফেলেন স্থানীয় মানুষ। পিছমোড়া করে হাত বেঁধে উলঙ্গ করে তাকে রাস্তায় হাঁটায় উন্মত্ত জনতা। তারপর তাকে তুলে দেয় পুলিশের হাতে। মহারাষ্ট্রের নাগপুর ঘটে এমন ঘটনা।

প্রশাসন জানিয়েছে, অভিযুক্ত জওহর বৈদ্য পেশায় স্থানীয় সমবায় ব্যাঙ্কের অর্থ সংগ্রাহক। রোববার কাজের জন্যই ওই অঞ্চলে গিয়েছিল সে। সেখানেই এক বাড়িতে চার বছরের নাবালিকাকে একা দেখতে পেয়ে জেগে ওঠে তার আদিম লালসা। জোর করে ধর্ষণ করতে গেলে আচমকা এসে পড়ে নাবালিকার মা। তার চিৎকারে ছুটে আসেন পাড়াপড়শি। তারপরেই ওই শাস্তির বিধান দেন সবাই।

জওহরের বিরুদ্ধে ইতিমধ্যেই পারদী থানায় ভারতীয় দণ্ডবিধি (আইপিসি) এবং শিশু নির্যাতন ও যৌন অপরাধ (পোকসো) আইনের বিভিন্ন ধারায় মামলা দায়ের করেছে পুলিশ।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply