রেল লাইনের অবৈধ দোকানের ওপরে ট্রেন, অল্পের জন্য বড় দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা

|

বগুড়া ব্যুরো

বগুড়া রেলস্টেশন এলাকায় রেললাইনের ওপর অবৈধভাবে গড়ে তোলার দোকানগুলোর ওপর দিয়ে ট্রেন প্রবেশের ঘটনা ঘটেছে। তবে স্টেশনের কাছাকাছি এলাকা হওয়ায় ট্রেনের গতিবেগ কম থাকায় এবং চালক অল্প সময়ের মধ্যে ট্রেন থামিয়ে দেয়ায় রক্ষা মেলে বড় দুর্ঘটনা থেকে।

অবশ্য ট্রেন প্রবেশের কারণে রেললাইনের ওপর অবৈধভাবে গড়ে ওঠা বেশ কিছু দোকানের মালামাল নষ্ট হয়েছে।

বুধবার দুপুরে বগুড়া রেলস্টেশনের অদূরে এ ঘটনা ঘটে।

রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ জানায়, দুপুরে ঢাকা থেকে লালমনিরহাটগামী লালমনি এক্সপ্রেসের সঙ্গে দিনাজপুর থেকে সান্তাহারগামী দোলনচাঁপা এক্সপ্রেস ট্রেনের ক্রসিং ছিলো। যে কারণে লালমনি এক্সপ্রেস স্টেশন এলাকায় ১ নম্বর লাইনে প্রবেশ করছিলো এবং বিপরীত দিকের দোলচাঁপা এক্সপ্রেসকে ২ নম্বর লাইন দিয়ে স্টেশনে প্রবেশের সিগন্যাল দেয়া হয়।

কিন্তু স্টেশন এলাকার রেললাইনের ওপরে অবৈধভাবে গড়ে তোলা দোকানীরা জানতেন না যে দিনাজপুর থেকে আসা ট্রেন ক্রসিংয়ের কারণে ২ নম্বর লাইনে উঠে আসবে। যে কারণে তারা কেউই দোকান কিংবা মালামাল কিছুই সরান নি। এমনকি বেচাকেনাও চলছিলো এসব দোকানে।

যথাসময়ে দোলনচাপা ট্রেন ওই লাইনে ক্রসিং নিয়ে স্টেশনে প্রবেশ করতে শুরু করলে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে পুরো এলাকায়। লাইনে রাখা দোকানের মালামালগুলোর ওপর দিয়ে কিছুদূর চলার পর চালক ট্রেনটি থামিয়ে দিতে সক্ষম হন।

এতে ওই এলাকার ব্যবসায়ী ও ক্রেতাসহ ট্রেনের শত শত যাত্রী দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পান। অবশ্য ট্রেন থামার পর তাড়াহুড়ো করে নামতে গিয়ে মানিক ও রুমি আকতার নামে দুই যাত্রী আহত হয়েছেন।

বগুড়া রেলওয়ে স্টেশনের স্টেশন মাস্টার আবুল কাশেম জানান, দোলনচাঁপা সঠিক সিগন্যাল পেয়েই ২ নম্বর লাইন হয়ে স্টেশনে প্রবেশ করছিলো। কিন্তু লাইনের ওপর অবৈধ দোকানগুলোর জন্য এই বিপত্তি হয়েছে। তবে ট্রেনচালক কম সময়ের মধ্যে ট্রেন থামিয়ে দেয়ায় বড় দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পাওয়া গেছে।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply