আধাবেলা না যেতেই পেঁয়াজের দাম নেমে এলো দেড়শ’র ঘরে

|

দিনের শুরুতে পেঁয়াজের কেজি আড়াইশ আধাবেলা না যেতেই নেমে এলো দেড়শ’র ঘরে। পাবনায় বেশি লাভের আশায় কৃষক একটু আগেভাগে পেঁয়াজ তুলছেন; তাতেই প্রভাব পড়ছে বাজারে। সুজানগরের হাটে একবেলায় মণপ্রতি দর কমেছে দুই হাজার টাকা পর্যন্ত।

পাবনার সুজানগরের ১০ টি ইউনিয়ন পেঁয়াজ চাষের জন্য বেশি উপযুক্ত। এখানকার ১৬ হাজার হেক্টর জমিতে মূলকাটা বা মুড়িকাটা পদ্ধতিতে আনাজের চাষ হয়েছে।

শীত মৌসুমের আগাম পেঁয়াজ ঘরে ওঠার কথা আরও কিছুদিন পর; কিন্তু অস্থিরতার সুযোগে বেশি লাভের আশায় অপরিপক্ক পেঁয়াজ বাজারে তুলছেন কৃষক। যার প্রভাবও পড়েছে সরাসরি। একদিনের ব্যবধানে আড়াইশ টাকার পেঁয়াজ ঘুরপাক খাচ্ছে দেড়শর ঘরে।

প্রতিমণ পেঁয়াজ ৯ হাজার টাকায় বিক্রি হয়েছে গেলো সপ্তাহে। চলতি সপ্তাহে হাটে দাম হাঁকানো হয় সাড়ে ৬ থেকে ৭ হাজার টাকা।

কৃষি বিভাগ বলছে, দুই দফা বন্যায় পেঁয়াজ চাষের সময় কিছুটা পিছিয়ে গেছে। তাই সময়মত দেশি জাতের যোগান নেই বাজারে। ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহে এ সংকট কেটে যাওয়ার আশা তাদের।

দর কিছুটা কমলেও ভোক্তা পর্যায়ে সহনীয় হতে বা পূর্বের অবস্থায় ফিরতে আমদানির উপর নির্ভর করতে হবে বলেই ধারণা কৃষি কর্মকর্তাদের।









Leave a reply