গাজায় ইসরায়েলি বিমান হামলায় নিহত কমপক্ষে ২২ ফিলিস্তিনি

|

অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় ইসরায়েলি বাহিনীর বিমান হামলায় প্রাণ গেছে সশস্ত্র ইসলামিক জিহাদ’র কমান্ডারসহ কমপক্ষে ২২ ফিলিস্তিনির। একইদিন, সিরিয়ার দামেস্কে অবস্থানরত ইসলামিক জিহাদের আরও দু’নেতাকে হত্যা করে ইসরায়েলি সেনারা। দীর্ঘ পরিকল্পনার পরই এসব অভিযান, জানিয়েছে তেলআবিব। পাল্টা হামলার শঙ্কায় ফিলিস্তিন সীমান্তে সেনা প্রহরা বাড়িয়েছে ইসরায়েল।

মঙ্গলবারের হামলায় স্ত্রী-সন্তানসহ নিহত হন সশস্ত্র ফিলিস্তিনি গোষ্ঠী ইসলামিক জিহাদের নেতা বাহা আবু আল-আত্তা। একইদিন দামেস্কে সংগঠটির আরও দু’নেতাকে হত্যা করে ইসরায়েলি সেনারা।

ইসলামিক জিহাদ নেতা খাদির হাবিব বলেন, “ইসরায়েলের অস্তিত্ব মুছে দিয়ে ফিলিস্তিনকে স্বাধীন করবো। সে পর্যন্ত লড়াই অব্যাহত থাকবে। উন্মাদ নেতানিয়াহুকে মাথা নত করতে বাধ্য করবো। আমাদের ওপর চাপিয়ে দেয়া এই লড়াই তখনই শেষ হবে, যখন অপরাধীরা পরাজিত হবে।”

তেল আবিবের দাবি, ইসরায়েলের ওপর রকেট হামলার প্রস্তুতি নেয়ার সময় চালানো হয় এই হামলা। যদিও ধারাবাহিক হামলায় হতাহত অধিকাংশই বেসামরিক ফিলিস্তিনি।

ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু বলেন, “আমাদের নাগরিকদের নিরাপত্তা বিঘ্নিত করে কেউ ছাড় পাবে ভাবলে তা হবে বড় ভুল। আমরাও পাল্টা আঘাত করতে জানি এবং করবো, তা সে সন্ত্রাসী যে প্রান্তেই গিয়ে লুকিয়ে থাকুক। আমাদের ক্ষতি করলে পস্তাতে হবেই।”

হামলার পর সীমান্তে বাড়তি সেনা ও সাঁজোয়া ট্যাঙ্ক মোতায়েন করেছে ইসরায়েল।









Leave a reply