বেনাপোল কাস্টম হাউসের লকার ভেঙ্গে স্বর্ণ-ডলার চুরি!

|

বেনাপোল কাস্টম হাউসের নিরাপদ গোপনীয় লকার ভেঙ্গে সোনা, ডলারসহ মূল্যবান পণ্যসামগ্রী চুরি গেছে।

এ ঘটনায় পোর্ট থানাসহ র‌্যাব, ডিবি, সিআইডি (ক্রাইম সিন) ও পিবিআই ঘটনাস্থলে তদন্ত কাজ শুরু করেছে।

সোমবার রাতের এ ঘটনায় দায়িত্বে অবহেলায় সোমবার রাত সাড়ে ৭টার দিকে বেনাপোল কাস্টমস কমিশনার ভোল্টের দায়িত্বে থাকা সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা সাহাবুল সর্দার ও ৪ জন সিপাহীকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

কাস্টমস সূত্র জানায়, কাস্টমস হাউসের পুরনো ভবনের দ্বিতীয় তলায় গোপনীয় কক্ষের তালা ও লোহার লকার ভেঙে বিপুল পরিমাণ স্বর্ণ, ডলার ও টাকাসহ বিভিন্ন ধরনের মূল্যবান পণ্য নিয়ে যায় চোরেরা। সেই কক্ষে প্রবেশ করার পূর্বে সংঘবদ্ধ চোরচক্র সিসি ক্যামেরার সবগুলো সংযোগ কেটে বিচ্ছিন্ন করে দেয়।

ওই লকারে কাস্টমস, কাস্টমস শুল্ক গোয়েন্দা, বিজিবি ও পুলিশের উদ্ধারকৃত স্বর্ণ, ডলার বৈদেশিক মুদ্রা, কষ্টি পাথরসহ মূল্যবান দলিলাদি ছিল।

স্থানীয়রা বলেন, কাস্টমস হাউসে সিসি ক্যামেরায় সুরক্ষিত একটি সংরক্ষিত এলাকায় কীভাবে এ ধরনের দুর্ধর্ষ চুরির ঘটনা ঘটলো তা নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।

বেনাপোল কাস্টম হাউসের কমিশনার বেলাল হোসেন চৌধুরী জানান, কাস্টমসের নিয়োগ প্রক্রিয়ায় কড়াকড়ি, ভায়াগ্রা চক্রর অপতৎপরতা ও কাস্টমস কমিশনারকে বিব্রতকর অবস্থায় ফেলার জন্য একটি চক্র এ কাজের সঙ্গে জড়িত থাকতে পারে।

যুগ্ম-কমিশনার শহীদুল ইসলামকে প্রধান করে ৫ সদস্যবিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে বলে তিনি জানান।









Leave a reply