অপহরণ করে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ

|

গাইবান্ধা প্রতিনিধি
গাইবান্ধার সাঘাটায় অপহরণের পর স্কুলছাত্রীকে আটদিন আটকে রেখে ধর্ষণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত প্রিন্স মিয়া (২৩) নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

সোমবার (১১ নভেম্বর) সন্ধ্যায় এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন বোনারপাড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পরির্দশক (ইনচার্জ) এনায়েত কবীর। এরআগে, সকালে ভরতখালি ইউনিয়নের উল্যা বাজার এলাকায় একটি ভাড়া বাসায় অভিযান চালিয়ে স্কুলছাত্রীকে উদ্ধার ও অভিযুক্ত প্রিন্স মিয়াকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

মামলার বরাত দিয়ে পুলিশ পরির্দশক এনায়েত কবীর জানান, বোনারপাড়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় এণ্ড কলেজের সপ্তম শ্রেণির ছাত্রী গত ৩ নভেম্বর বিকেলে স্কুল ছুটির পর বাড়ি ফিরছিলো। পথে প্রিন্স মিয়া তাকে বাড়ি পৌঁছে দেয়ার কথা বলে কৌশলে অপহরণ করে নিয়ে যায়। এরপর প্রিন্স উল্লা বাজার এলাকার ওয়াহেদুল ইসলামের বাসা ভাড়া নিয়ে তাকে আটকে রাখে। অপহরণ ঘটনার পর অনেক খোঁজাখুঁজি করেও ওই ছাত্রীর কোন সন্ধান পায়নি পরিবারের লোকজন। রবিবার (১০ নভেম্বর) রাতে হঠাৎ করে ওই ছাত্রী নিজেই ফোন করে অপহরণের ঘটনাটি পরিবারকে জানায়। পরে ফোনের সূত্র ধরে সোমবার
সকালে অভিযান চালিয়ে ওই বাসা থেকে স্কুলছাত্রীকে উদ্ধারসহ অপহরণকারী প্রিন্সকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

অপহরণের অভিযোগে রবিবার রাতে প্রিন্স মিয়া ও তার সহযোগী নয়ন মিয়ার বিরুদ্ধে সাঘাটা থানায় মামলা করেন স্কুলছাত্রীর মা।

গ্রেফতারকৃত প্রিন্স মিয়া সাঘাটা উপজেলার বোনারপাড়া ইউনিয়নের পশ্চিম রাঘবপুর গ্রামের আব্দুস সামাদের ছেলে। প্রিন্স পেশায় একজন অটো চালক।









Leave a reply