শ্রীলংকার এক ক্রিকেটারের পারিশ্রমিক পুরো বাংলাদেশ দলের কাছাকাছি!

|

সম্প্রতি পারিশ্রমিক বাড়ানোসহ কয়েক দফা দাবিতে আন্দোলনে নামেন বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা। এ নিয়ে সবার মাঝে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা যায়। অনেকে মনে করেন, দেশের প্রেক্ষাপটে প্রচুর বেতন পান জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা।

তবে সূক্ষ্ম দৃষ্টিতে দেখলে, কম পারিশ্রমিক পান তারা। বাকি টেস্ট খেলুড়ে দলগুলোর ক্রিকেটারদের চেয়ে ঢের কম বেতন পান সাকিব-তামিমরা। তাদের সম্মিলিত বার্ষিক বেতনের কাছাকাছি বেতন পান শ্রীলংকার একজন ক্রিকেটার।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) কেন্দ্রীয় চুক্তিতে আছেন ১৭ জন ক্রিকেটার। ৫ ক্যাটাগরিতে তাদের বেতন দেয়া হয়। এ প্লাস ক্যাটাগরিতে মাশরাফি, সাকিব, তামিম, মুশফিক ও মাহমুদউল্লাহ বার্ষিক বেতন পান ৪৮ লাখ টাকা করে। এ ক্যাটাগরিতে থাকা ইমরুল, রুবেল ও মোস্তাফিজ পান ৩৬ লাখ টাকা করে। বি ক্যাটাগরিতে মুমিনুল, লিটন, মিরাজ ও তাইজুল পান ২৪ লাখ টাকা করে। আর রুকি ক্যাটাগরিতে সাইফউদ্দিন, রাহী, রনি, নাঈম ও খালেদ পান ১২ লাখ টাকা করে।

সবমিলিয়ে বাংলাদেশের চুক্তিভুক্ত সব ক্রিকেটারের বছরে বেতন প্রায় ৫ কোটি ৪ লাখ টাকা। সেখানে তাদের সম্মিলিত বার্ষিক বেতনের কাছাকাছি পান লংকান ‘এ’ ক্যাটাগরির একজন ক্রিকেটার। এসএলসির সবশেষ চুক্তি অনুযায়ী, এ ক্যাটাগরিতে থাকা ম্যাথুস, চান্দিমাল, লাকমল, করুনারত্নেরা বার্ষিক বেতন পান প্রায় ৪ কোটি ২৮ লাখ টাকা!

মোট ৫ ক্যাটাগরিতে ভাগ করে ক্রিকেটারদের বেতন দেয় শ্রীলঙ্কান বোর্ড। সবচেয়ে কম বেতন পান পঞ্চম ক্যাটাগরিতে থাকা ‘প্রিমিয়ার ক্যাটাগরি’র খেলোয়াড়রা। তাদের বার্ষিক বেতন ৭৭ লাখ টাকা। এই ক্যাটাগরির ক্রিকেটারদের সংখ্যা চলতি বছর ১৬ জন।

অর্থাৎ, লংকার সবচেয়ে কম বেতন পাওয়া খেলোয়াড়দের (যারা মূলত দলে নিয়মিত চান্স পান না) থেকেও অনেক কম বেতন পান সাকিব-তামিমরা!









Leave a reply