চাঁদপুরে স্ত্রী হত্যা মামলায় স্বামীর যাবজ্জীবন

|

চাঁদপুর প্রতিনিধি:

চাঁদপুর শহরের রহমতপুর আবাসিক এলাকায় স্ত্রী সালমা বেগম (৩৮)কে শ্বাসরোধ করে হত্যার অপরাধে স্বামী গফুর মিজিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত।

মঙ্গলবার দুপুরে চাঁদপুরের জেলা ও দায়রা জজ মো. জুলফিকার আলী খাঁন এই রায় দেন।

হত্যার শিকার সালমা চাঁদপুর শহরের উত্তর শ্রীরামদী মাদ্রাসা রোডের মৃত খালেক বেপারীর মেয়ে এবং গফুর মিজি ফরিদগঞ্জ উপজেলার গোবিন্দপুর ইউনিয়নের ভাটিয়ালপুর এলাকার চির্কা চাঁদপুর গ্রামের মৃত রহমান মিজির ছেলে।

২০১৫ সালের ২০ অক্টোবর রাত ১০টার দিকে সালমার ছোট ভাই সাইফুল ইসলাম (১৯) বোনের বাসায় আসেন। রাতের খাবার শেষে সাইফুল পাশের কক্ষে ঘুমিয়ে পড়ে। গভীর রাতে দেরী করে গফুর মিজি বাসায় আসলে তা নিয়ে তাদের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়।

পরদিন ২১ অক্টোবর ভোর ৬টায় সালমার ছোট ভাই সাইফুল ঘুম থেকে উঠে দেখেন তার বোনের মরদেহ মেঝেতে পড়ে আছে এবং গলাতে ফাঁসের চিহ্ন রয়েছে। তাৎক্ষনিক সে চাঁদপুর মডেল থানায় খবর দেয়।

এই ঘটনায় ২১ অক্টোবর চাঁদপুর মডেল থানায় অপমৃত্যু মামলা হয়। ২০১৬ সালের ৩০ জুন ময়না তদন্ত পাওয়ার পর পুলিশ নিশ্চিত হয় সালমাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে। সেই আলোকে সালমার মা রহিমা বেগম ১ জুলাই গফুর মিজিকে আসামী করে হত্যা মামলা দায়ের করে। পরে পুলিশ আসামী গফুর মিজিকে আটক করে আদালতে সোপর্দ করেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা তদন্ত শেষে ২০১৬ সালের ১ নভেম্বর আদালতে চার্জশীট দাখিল করেন। আদালত সাক্ষ্য প্রমাণ ও মামলার নথিপত্র পর্যালোচনা করে আসামীর উপস্থিতিতে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড প্রদান করেন।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply