গ্রামীণফোন ও রবিতে বসছে প্রশাসক

|

সরকারের পাওনা প্রায় সাড়ে ১৩ হাজার কোটি টাকা আদায়ে ব্যর্থ হয়ে, দেশের শীর্ষ দুই মোবাইল নেটওয়ার্ক অপারেটর গ্রামীণফোন ও রবি আজিয়াটাতে প্রশাসক বসানোর সিদ্ধান্ত চুড়ান্ত করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন-বিটিআরসি। এর আগে, গেল ৫ সেপ্টেম্বর গ্রামীণফোন ও রবির টুজি ও থ্রিজি লাইসেন্স বাতিলের নোটিস পাঠায়, এই নিয়ন্ত্রক সংস্থা।

বিটিআরসি চেয়ারম্যান জহুরুল হক জানায়, গ্রামীণফোন ও রবিতে আলাদা দুই প্রশাসক বসানের অনুমতি চেয়ে, মন্ত্রণালয়ে চিঠি পাঠানো হবে।

জানা গেছে, একই সঙ্গে ওই দুই প্রশাসককে সহযোগিতা করতে আরও তিনজন করে বিশেষজ্ঞ নিয়োগ দেওয়া হতে পারে। যাদের আইন, প্রকৌশল ও আর্থিক বিষয়ে অভিজ্ঞতা থাকবে। গ্রামীণফোন ও রবির কাছে সরকারের পাওনাকে কেন্দ্র করে বিটিআরসির বিরোধ মেটাতে গত ১৮ সেপ্টেম্বর অর্থমন্ত্রীর উদ্যোগে সমঝোতা বৈঠক হয়। যেখানে টেলিযোগাযোগমন্ত্রী, বিটিআরসি চেয়ারম্যান, এনবিআর চেয়ারম্যান ছাড়াও মোবাইল ফোন কোম্পানির প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন। ওই বৈঠকে চলমান বিরোধ সমঝোতার মাধ্যমে সমাধানের সিদ্ধান্ত হয়। অবশ্য সরকারের পাওনার বিষয়ে গত ২৫ আগস্ট রবি ও ২৬ আগস্ট গ্রামীণফোন ঢাকার দেওয়ানি আদালতে দুটি মামলা করে।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply