বুধবারের পত্রিকায় বাংলা মাসের তারিখ নিয়ে বিভ্রান্তি!

|

বাংলা বর্ষপঞ্জির চলতি ১৪২৬ সালের দিন গণনা বদলে গেছে। আগের হিসাব অনুযায়ী আশ্বিন মাসের ৩০ দিন পূর্ণ হওয়ার পর আজ বুধবার পয়লা কার্তিক হওয়ার কথা। কিন্তু নতুন হিসাব অনুযায়ী আশ্বিন মাসের ৩১ তারিখ আজ।

আগামীকাল বৃহস্পতিবার পয়লা কার্তিক।

বাংলা একাডেমির পক্ষ থেকে এই নির্দেশনা জারি করা হলেও আজকের জাতীয় পত্রিকাগুলো দেখে বিভ্রান্তি তৈরি হয়েছে। কিছু পত্রিকায় বাংলা একাডেমির নির্দেশনা অনুযায়ী আজ ৩১ আশ্বিন লেখা হয়েছে। বাকিগুলোতে আগের হিসাব অনুযায়ী আজ বুধবার ১ লা কার্তিক গণনা করা হয়েছে। এতে পাঠকদের বিভ্রান্তির মধ্যে পড়তে হয়েছে।

বাংলা একাডেমির নির্দেশনা অনুযায়ী, ২০২০ সাল অধিবর্ষ (লিপইয়ার) হওয়ায় নতুন বর্ষপঞ্জি অনুযায়ী চলতি বছরের ফাল্গুন মাস ৩০ দিনে পূর্ণ হবে। তবে আগামী বছর থেকে এ মাস আবার ২৯ দিনে গণনা করা হবে।

বাংলা একাডেমি জানিয়েছে, নতুন বর্ষপঞ্জিতে বাংলা বর্ষের প্রথম ছয় মাস ৩১ দিনে গণনা করা হবে। দাবি ছয় মাসের মধ্যে কার্তিক, অগ্রহায়ণ, পৌষ, মাঘ ও চৈত্র- এই পাঁচ মাস ৩০ দিনে গণনা করা হবে। আর ফাল্গুন মাস হবে ২৯ দিনের। তবে লিপইয়ারের কারণে চলতি বছর ফাল্গুন মাস ৩০ দিনে পূর্ণ হবে।

লিপইয়ারে ফাল্গুনে মাস ৩১ দিনে গণনা করায় জাতীয় দিবসগুলোতে বাংলা ও ইংরেজি তারিখে পার্থক্য দেখা দেয়। এ সমস্যা দূর করতে জাতীয় দিবসগুলোর দিন বাংলা ও ইংরেজিতে ঠিক রাখতে ২০১৫ সালে অধ্যাপক অজয় রায়ের নেতৃত্বে একটি কমিটি করে বাংলা একাডেমি।

ওই কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী ২০১৯ সালের ছুটি তালিকায় বাংলা তারিখ সংস্কার করা হয়। ফলে এ বছর বিজয় দিবস ১৬ ডিসেম্বর পালিত হবে ১ পৌষ, স্বাধীনতা দিবস ২৬ মার্চ ১২ চৈত্র, ৮ মে রবীন্দ্রজয়ন্তী ২৫ বৈশাখ, ২৫ মে নজরুলজয়ন্তী ১১ জ্যৈষ্ঠ পালিত হবে। তবে পহেলা বৈশাখ আগের মতোই ১৪ এপ্রিল পালন করা হবে।

এর আগে পঞ্চাশের দশকে জ্যোতির্পদার্থবিজ্ঞানী ড. মেঘনাদ সাহার নেতৃত্বে এবং ১৯৬৩ সালে ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহর নেতৃত্বে দুই দফা সংস্কার হয় বাংলা বর্ষপঞ্জি।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply