পাবনার চাটমোহরে স্কুলছাত্রী গণধর্ষণের শিকার, আটক ১

|

পাবনা প্রতিনিধি:

পাবনার চাটমোহর উপজেলার মথুরাপুর সেন্ট রীটাস হাইস্কুলের ১০ শ্রেণীর এক স্কুলছাত্রী (১৬) গণধর্ষণের শিকার হয়েছে।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার রাতে থানায় মামলা হলে পুলিশ এক যুবককে আটক করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে গত শুক্রবার (১১ অক্টোবর) দিবাগত রাতে উপজেলার মথুরাপুর গ্রামে।

বুধবার ধর্ষিতার ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য পাবনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।
অভিযোগে জানা গেছে, উপজেলার মথুরাপুর গ্রামের আনোয়ার হোসেনের মেয়ে ও মথুরাপুর সেন্ট রীটাস হাইস্কুলের ১০ শ্রেণীর ছাত্রীকে (১৬) একই গ্রামের আনোয়ার হোসেনের ছেলে আরিফ হোসেন (২০) উত্যক্ত করতো। এ অবস্থায় ওই স্কুলছাত্রী ঢাকায় চলে যায়। সম্প্রতি এসএসসি নির্বাচনী পরীক্ষা শুরু হলে সে চাটমোহরে আসে এবং স্কুলে এসএসসি নির্বাচনী পরীক্ষায় অংশ নেয়।

গত শুক্রবার দিবাগত রাতে মেয়েটি প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিয়ে ঘরের বাইরে বেরুলে ওঁৎপেতে থাকা চাটমোহর পলিটেকনিকের ছাত্র আরিফ তার অপর ২ বন্ধু একই গ্রামের শাহাদত হোসেনের ছেলে জমির উদ্দিন (১৮) ও আজাহার আলীর ছেলে সুমন (২০) এর সহায়তায় ওই স্কুলছাত্রীকে জোড় করে সুমনের বাড়িতে নিয়ে গিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। ধর্ষিতা স্কুলছাত্রী বাড়িতে এসে তার মা-বাবাকে ঘটনাটি জানায়। স্থানীয় প্রধানদের জানানোর পর কোন সমাধান না পেয়ে মঙ্গলবার (১৫ অক্টোবর) সন্ধ্যায় ওই স্কুলছাত্রী চাটমোহর থানায় এসে ধর্ষণের বর্ণনা দেন। পরে মেয়ের বাবা বাদি হয়ে ৩ জনের নামে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা দায়ের করেন।

থানার ওসি সেখ নাসীর উদ্দিন সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে অভিযান চালিয়ে আনোয়ার হোসেনের ছেলে আরিফ হোসেনকে আটক করেন।

বুধবার আটক আরিফকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। ওই স্কুলছাত্রীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য পাবনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

থানার ওসি সেখ নাসীর উদ্দিন জানান, থানায় মামলা হওয়ার পর একজনকে আটক করা হয়েছে অভিযান চালিয়ে আনোয়ার হোসেনের ছেলে আরিফ হোসেনকে আটক করা হয়েছে। ভিকটিমের ডাক্তারি পরীক্ষা করা হয়েছে। অন্যদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply