জন্মের ১৯ বছর আগেই জমির মালিক, মেয়ের চেয়ে বাবা মাত্র ২ বছরের বড়!

|

জাকারিয়া হৃদয়, পটুয়াখালী:

জন্মের ১৯বছর আগেই কিনেছেন জনি হয়েছে দলিল ও রেকর্ড। নিজের জন্মের ২ বছর পরই হয়েছে মেয়ের জন্ম।

চাঞ্চল্যকর এ ঘটনা ঘটেছে পটুয়াখালীর দশমিনা উপজেলার বহরমপুর ইউনিয়নের উত্তর আদমপুর নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে কর্মরত এক চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারীর ক্ষেত্রে। স্কুলে জমা দেয়া তার সনদপত্রে এসব তথ্য পাওয়া গেছে। আর এভাবেই ভুয়া জন্ম তারিখ ব্যবহার করে মো. মোবারক আলী নামের ওই ব্যক্তি চাকুরি করে আসছেন দীর্ঘদিন ধরে। স্থানীয়দের কাছ থেকে এমন অভিযোগ পাওয়ার পর খোজ নিয়ে জানা গেছে, অষ্টম শ্রেণি পাশ করেছেন এমন সনদ দিয়ে তিনি চাকুরি করছেন। সেই সনদ অনুযায়ী তিনি ১৯৭৩ সালের ১২ ফেব্রুয়ারি জন্মগ্রহন করেছেন। তাঁর বাবার নাম সেকান্দার আলী প্যাদা ও মাতার নাম ময়না বিবি। তাঁর ভোটার আইডি কার্ডেও একই জন্ম তারিখ ও ভোটার নম্বর ৭৮০৫৭৭৭৭৬১৩৬।

খোজ নিয়ে জানা গেছে, মোবারক আলী ১৯৫৪ সালের ২২ ফেব্রুয়ারি স্থানীয় আবদুল মজিদ আকনের কাছ থেকে জমি ক্রয় করেছেন এবং একই বছরের ৫ আগস্ট তাঁর নামে জমি রেকর্ড হয়। তাঁর এক মেয়ে ও চার ছেলে। তাঁর মেয়ে মোসা. জাহানারার জাতীয় পরিচয়পত্র অনুযায়ী জন্ম তারিখ ১৯৭৫ সালের ১০ মে। সে হিসেবে মেয়ের চেয়ে তিনি মাত্র দুই বছর দুই মাস ২৮ দিনের বড়। ছোট ছেলে মুজিবুর রহমানের শিক্ষাগত সনদ অনুযায়ী জন্ম গ্রহণ করেন ১৯৮৮ সালের এক জানুয়ারি।

তবে মো. মোবারক আলী জানান, ‘৫৪ সালের আগেই জন্মগ্রহন করেছেন এবং ৫৪ সালে তাঁর নামে জমি ক্রয় করা হয়েছে।’ তাছাড়া কর্তৃপক্ষ তাঁকে কিভাবে চাকুরি দিয়েছেন সে বিষয়ে তিনি কিছুই জানেন না বলে জানান।

এদিকে ওই স্কুলের প্রধান শিক্ষক মো. শাহাবুদ্দিন জানান, ‘কর্তৃপক্ষ তাঁর সনদ দেখে চাকুরি দিয়েছেন। আর ওই সনদ মোবারক আলী কর্তৃপক্ষের কাছে জমা দিয়েছেন।’

দশমিনা উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. সেলিম মিয়া বলেন, ‘বিষয়টি এই প্রথম শুনলাম। এ বিষয়ে খোঁজ নিয়ে অবশ্যই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’









Leave a reply