তুর্কি বাহিনীকে মোকাবেলায় এগোচ্ছে রুশ-সিরিয়ান সেনারা, মার্কিন সেনাদের বাঁধা!

|

সিরিয়ার যুদ্ধ জঠিল থেকে জঠিলতর আকার ধারণ করছে। বহুমূখী এই যুদ্ধে নতুন হিসেবে নিকেশ শুরু হয়েছে গত এক সপ্তাহ ধরে।

সীমান্তবর্তী উত্তর সিরিয়ার বিভিন্ন অঞ্চল থেকে কুর্দি বিদ্রোহী ওয়াইপিজির সদস্যদের তাড়াতে গত ছয় দিন আগে অপারেশন পিস স্প্রিং শুরু করে তুর্কি সেনারা। তাদের সাথে আছে সিরিয়ায় তুর্কি সমর্থিত সুন্নী বিদ্রোহীরা।

এরা গত কয়েক বছর ধরে আসাদ বাহিনী, আইএস এবং ওয়াইপিজির বিরুদ্ধে। অন্যদিকে এতদিন সিরিয়ান সরকার, আইএস এবং তুর্কি সমর্থিত গোষ্ঠির বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে এসেছে ওয়াইপিজি।

কিন্তু তুরস্কের অভিযান শুরুর পর ওয়াইপিজির প্রধান মিত্র যুক্তরাষ্ট্র তাদেরকে একা ফেলে যুদ্ধস্থল ত্যাগ করলে বাধ্য হয়ে পুরোনো শত্রু সিরিয়ান সরকারের সাথে সমঝোতা চুক্তি করে তারা। এর ফলে সিরিয়ান ও রুশ বাহিনীর সহায়তায় তারা তুরস্কের হামলা মোকাবেলায় বাড়তি সুবিধা পাবে।

অন্যদিকে আজ সোমবার কুর্দিদের সাথে সিরিয়ানদের সমঝোতার পর মার্কিন সংবাদমাধ্যম ডেইলি বিস্ট খবর নতুন খবর দিয়েছে। রুশ ও সিরিয়ান বাহিনীর অগ্রসর হওয়ার পথে বাধা দিচ্ছে মার্কিন সেনারা। দক্ষিণ-পশ্চিম সিরিয়ায় এ ধরনের ঘটনা ঘটেছে। দক্ষিণ রাক্কায় সরকারি বাহিনীর অবস্থানে বিমান হামলা চালিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে যুদ্ধবিমান।

মার্কিনীদের কাছে বিশ্বাসঘাতকতা শিকার হয়েছেন সিরিয়ান কুর্দি বিদ্রোহীরা। দুদিন আগে এমনটাই বলেছিলেন বিদ্রোহীদের নেতা জেনারেল মজলুম কোবানি আব্দি।

ওই সময় তিনি বলেছিলেন যদি যুক্তরাষ্ট্র তাদেরকে তুরস্কের বোমা হামলা থেকে না রক্ষা করে তাহলে তারা রাশিয়া ও সিরিয়ান সরকারের সাথে চুক্তি করবে। ঠিক তাই হলো। প্রাথমিকভাবে সিরিয়ান সরকারের সাথে সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষর করলো কুর্দি নেতারা।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply