ব্রিজ আছে, রাস্তা নেই

|

বগুড়ার সোনাতলার মধ্য দীঘলকান্দি গ্রামে প্রায় ১৫ লাখ টাকা ব্যয়ে ব্রিজ নির্মাণ করলেও পূর্বপাশে মাত্র ২০০ গজ সড়কে মাটি না থাকায় তা কোনো কাজে আসছে না।

এতে আশপাশের বিভিন্ন গ্রামের জনগণকে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। ভুক্তভোগীরা অবিলম্বে ওই সড়কে মাটি ভরাট করতে সংশ্লিষ্ট বিভাগের জরুরি হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

জানা গেছে, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদফতরের অর্থায়নে ২০১৮-২০১৯ অর্থবছরে সোনাতলা উপজেলার জোড়গাছা ইউনিয়নে মধ্য দীঘলকান্দি গ্রামে ১৪ লাখ ৮৫ হাজার ২৩৭ টাকা ব্যয়ে ১৮ ফুট দৈর্ঘ্য ব্রিজ নির্মাণ করা হয়। ওই ব্রিজের পূর্ব পাশে মাত্র ২০০ গজ রাস্তায় মাটি না কাটায় যাতায়াতের ক্ষেত্রে কাজে আসছে না।

মধ্য দীঘলকান্দি থেকে চকচকিয়া রেল ব্রিজ পর্যন্ত এলাকার কৃষকরা তাদের উৎপাদিত ফসল বাজারে নিয়ে যেতে পারছেন না। ওই রাস্তা দিয়ে কোনোরকমে রিকশাভ্যান যাতায়াত করতে পারলেও সম্প্রতি ব্রিজের পূর্ব পাশে বন্যার পানির স্রোতে ভেঙে যায়।

এতে ওই সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। এমনকি ব্রিজের পূর্ব পাশের রাস্তাটিও নিশ্চিহ্ন হয়ে যাচ্ছে। এতে দীঘলকান্দি গ্রামের প্রায় ৫ হাজার মানুষের যাতায়াতের পাশাপাশি আশপাশের আরও ৬/৭টি গ্রামের ২০ হাজার মানুষ ওই পথে যাতায়াত বিঘ্নিত হচ্ছে।

এ প্রসঙ্গে জোড়গাছা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান রোস্তম আলী মণ্ডলের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, বর্তমান সরকারের শাসনামলে ওই স্থানে ব্রিজ নির্মাণ করা হয়েছে। রাস্তা নির্মাণে প্রকল্প প্রণয়ন করে বরাদ্দের জন্য পাঠানো হয়েছে। বরাদ্দ এলেই কাজটি শেষ করা হবে।

সোনাতলা উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা জিয়াউর রহমান জানান, প্রায় ১৫ লাখ টাকা ব্যয়ে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদফতরের অর্থায়নে সম্প্রতি ওই স্থানে ব্রিজ নির্মাণের কাজ শেষ হয়েছে। জনগণের স্বার্থে শিগগিরই রাস্তা নির্মাণ করা হবে।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply