আবরার হত্যা: কারাগারে অনিককে পেটালেন কয়েদীরা

|

বুয়েটের মেধাবী ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যা মামলার অন্যতম প্রধান আসামি মো. অনিক সরকার কারাগারে কয়েদি ও হাজতিদের তোপের মুখে পড়ে মারধরের শিকার হয়েছেন বলে জানা গেছে।

শনিবার কেরানীগঞ্জে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে এ ঘটনা ঘটেছে।

ভারতকে গ্যাস, পানি ও সমুদ্রবন্দর দেয়ার বিরোধিতা করে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেয়ার জেরে ৬ অক্টোবর আবরারকে নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যা করেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

এই হত্যাকাণ্ডের অন্যতম প্রধান আসামি হলেন অনিক সরকার। সেদিন মদ্যপ অবস্থায় একাধিকবার আবরারকে পিটিয়েছিলেন তিনি।

কারাসূত্রে জানা গেছে, গণমাধ্যমে আবরার হত্যাকাণ্ড ফলাও করে প্রচার হওয়ায় এর খুঁটিনাটি জানতে পারেন কারাবন্দিরাও।

আবরারের মতো মেধাবী ছাত্রের এমন নির্মম মৃত্যু অন্য সব সাধারণ মানুষের মতো মেনে নিতে পারেননি কয়েদি ও হাজতিরা।

জানা গেছে, ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিবি) আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে গতকাল শনিবার ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালত এই আসামির জবানবন্দি রেকর্ড করেন। পরে অনিক সরকারকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন আদালত।

পরে সন্ধ্যার দিকে কেরানীগঞ্জে কেন্দ্রীয় কারাগারে নেয়া হয় অনিক সরকারকে। আনুষ্ঠনিকতা শেষে প্রধান ফটক দিয়ে কারাগারে প্রবেশ করেন তিনি।

এসময় ক্ষুব্ধ বন্দিদের তোপের মুখেন পড়েন অনিক। আবরার হত্যার আসামি অনিককে তারা মারধরও করেন। পরে কারারক্ষীরা তাকে অন্যত্র সরিয়ে নেয়।

তবে বিষয়টি আনুষ্ঠানিকভাবে স্বীকার করেনি কারা কর্তৃপক্ষ।

ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলার মাহবুবুল ইসলাম বলেন, এরকম কোনো ঘটনা ঘটেনি।

সূত্র: যুগান্তর





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply