গ্রাম্য কবিরাজের অপচিকিৎসায় কিশোরীর হাতে পচন

|

নেত্রকোনা প্রতিনিধি:

নেত্রকোনার কলমাকান্দায় গ্রাম্য কবিরাজের অপচিকিৎসায় হাতে পচন ধরেছে এক কিশোরীর।

কলমাকান্দা সদর ইউনিয়নের কালিহালা গ্রামের হতদরিদ্র সায়েদ আলীর মেয়ে ইভা আক্তার শাপলা (১৫) আক্তারের হাতে খোস পাঁচড়া হলে গ্রাম্য কবিরাজ মিজান আহমেদের শরণাপন্ন হন।

কবিরাজ মিজান ওই কিশোরীর চিকিৎসা শুরু হলে হাতে পচন ধরে। এক মাস চিকিৎসার পর অবস্থার অবনতি হলে ইভাকে কলমাকান্দা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে চিকিৎসা করানো হয়।

ইভার খালা রিনা বেগম জানান, একমাস আগে হাতে বিছা (এক ধরণের বিষাক্ত পোকা) লেগেছে। এরপর থেকে চিকিৎসা করছে ওই কবিরাজ। ইভার হাত পচে গেছে। হাতে পোকা হয়ে গেছে। প্রচন্ড যন্ত্রণায় শুক্রবার বিকেলে হাসপাতালে নিয়ে এসেছি। কিন্তু চিকিৎসকরা তাকে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করতে বলেছে, কিন্তু টাকা না থাকায় যেতে পারিনি।

কলমাকান্দা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল কর্মকর্তা আরিফ জানান, উন্নত চিকিৎসার জন্য দ্রুত ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে যেতে হবে।

পরিবারের লোকজন জানায়, টাকা জোগাড় করে শনিবার ময়মনসিংহ মেডিকেলে যাবার কথা থাকলেও কবিরাজ বলছে-ডাক্তারের কাছে যাওয়ার দরকার নেই, প্রয়োজন যখন হবে তখন আমিই বলবো।

গ্রাম্য কবিরাজ মিজানের বাড়ি একই উপজেলার পুলিয়াপাড়া গ্রামে। তার মুঠোফোন বন্ধ থাকায় তার সাথে কথা বলা সম্ভব হয়নি।

কলমাকান্দা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল কর্মকর্তা আল মামুন শুক্রবার রাত সাড়ে আটটার দিকে জানান, আমরা ইভার চিকিৎসা করবো। তাকে আবার হাসপাতালে নিয়ে আসতে বলেছি।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply