কুষ্টিয়ায় এলাকাবাসীর বাধার মুখে বুয়েট ভিসি, ফিরে এলেন দেখা না করেই

|

ছাত্রলীগের মারধরের শিকার হয়ে নিহত বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদের কুষ্টিয়ার বাড়িতে বুয়েট ভিসি অধ্যাপক সাইফুল ইসলামকে ঢুকতে দেয়নি এলাকাবাসী। এতে তাকে আবরারের বাবা-মায়ের সাথে দেখা না করেই ফিরে আসতে হলো।

আজ বিকাল ৫টা দিকে কুষ্টিয়া পৌঁছান অধ্যাপক সাইফুল ইসলাম। এসময় জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের পাশাপাশি তার সাথে ছিলেন জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ইয়াসির আরাফাত তুষার ও সেক্রেটারি সাদ আহমেদ।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বাড়ি থেকে বেশ দূরে আবরারের কবর জিয়ারত শেষে বাবা-মায়ের সাথে সাক্ষাতের জন্য তাদের বাড়ির উদ্দেশ্যে রওয়ান দেন ভিসি। পথে তিনি স্থানীয় এলাকাবাসী বাধার মুখে পড়েন। আশপাশের গ্রাম থেকে কয়েক হাজার মানুষ রাস্তায় জড়ো হয়ে ভিসির বিরুদ্ধে স্লোগান দেন।

আরবার হত্যার পর লাশ দেখতে না যাওয়া, একদিন পর্যন্ত ক্যাম্পাসে না উপস্থিত হওয়া এবং জানাজায় পর্যন্ত না থাকায় ভিসির বিরুদ্ধে শিক্ষার্থীরা ক্ষুব্ধ আছেন।

একই কারণে আবরারের এলাকাবাসীর মধ্যেও ক্ষোভ ছিল। আজ বুধবার বিকালে আবরারের বাড়ির সামনে জড়ো হওয়া অনেকে বলেছেন, প্রয়োজনের সময় তিনি দায়িত্ব পালন না করে দাফনের একদিন পর কবর দেখতে আসার কোনো মানে হয় না।

এলাকাবাসীর বাধার মুখে এক পর্যায়ে পুলিশ প্রহরায় ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন ভিসি সাইফুল ইসলাম। ওই সময় ২ শতাধিক নিরাপত্তাকর্মী ছিলেন সেখানে উপস্থিত ছিলেন বলে জানিয়েছেন সাংবাদিকরা।









Leave a reply