আমার দলের কে, কী সেটা আমি দেখতে চাই না: প্রধানমন্ত্রী

|

সাধারণ মানুষ দুর্নীতিবাজ না। মুষ্টিমেয় কিছু মানুষ দুর্নীতি করে। দুর্নীতি করে কেউ কেউ অনেক টাকার মালিক হয়েছে, এটা বৈষম্য সৃষ্টি করছে। দুর্নীতির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিব। এমন মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ভয়েস অফ আমেরিকাকে দেয়া একান্ত সাক্ষাৎকারে তিনি একথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎকারটি নিয়েছেন ভয়েস অফ আমেরিকার বাংলা বিভাগের প্রধান রোকেয়া হায়দার। সেখানে উঠে আসে রোহিঙ্গা সংকট, দুর্নীতি বিরোধী অভিযানসহ সমসাময়িক নানা ইস্যু।

রোহিঙ্গা সংকট প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বলেন, রিফিউজি থাকার বেদনা আমি বুঝি। তাই মানবিক কারণেই রোহিঙ্গাদের আমরা আশ্রয় দিয়েছিলাম। তাদের থাকা, খাওয়া, চিকিৎসার ব্যবস্থা করেছিলাম। এই সমস্যাটা মিয়ানমারের সমস্যা। তাদের উচিত এটার সমাধান করা। তাদের নাগরিকদের ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়া। আন্তর্জাতিকভাবেও তাদের ওপর চাপ প্রয়োগ করা হচ্ছে। কিন্তু, তারা এখনও সমাধান করতে পারেনি। তাদের আত্মসম্মানবোধ থেকে থাকলে দ্রুত এর সমাধান হওয়া উচিত।

দেশের চলমান দুর্নীতি বিরোধী অভিযান নিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এখানে আমার দলের কে, কী সেটা আমি দেখতে চাই না, আমার আত্মীয়-পরিবার আমি দেখতে চাই না, বিত্তশালী কেউ আছে কিনা এটা আমি দেখতে চাই না। যেখানে অনিয়ম ও দুর্নীতি সেখানে অভিযান চলবে।

তিনি বলেন, দেখানোর একটা অসুস্থ প্রতিযোগিতা চলছে। এটা সম্পূর্ণ অসুস্থ মানসিকতা। সেখান থেকে ভবিষ্যত প্রজন্মকে রক্ষা করতে হবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, সমাজে অসৎ পথে অর্থ উপার্জনের হার বেড়ে গেলে যেসব ব্যক্তি বা তাদের সন্তানেরা সৎ পথে জীবন নির্বাহ করতে চান, তাদের জন্য সেটা কঠিন হয়ে পড়ে। সৎভাবে চলতে গেলে একজনকে বেশ কিছু সীমাবদ্ধতা নিয়ে চলতে হয়। আর অসৎ উপায়ে উপার্জিত অর্থ দিয়ে এই ব্র্যান্ড–ওই ব্র্যান্ড, এটা-সেটা, হইচই, খুব দেখানো যায়। ফলাফলটা এই দাড়ায়, একজন অসৎ মানুষের দৌরাত্ম্যে যারা সৎ জীবন যাপন করতে চান, তাদের জীবনযাত্রাটাই কঠিন হয়ে পড়ে।









Leave a reply