তাবিজ দিয়ে মেরে ফেলার ভয় দেখিয়ে মাদ্রাসা ছাত্রকে বলাৎকার

|

স্টাফ রিপোর্টার, নেত্রেকোণা
তাবিজ দিয়ে মেরে ফেলার ভয় দেখিয়ে নেত্রকোণার খালিয়াজুরী ইসলামিয়া কওমি হাফিজিয়া মাদ্রাসার এক ছাত্রকে বলৎকার করার অভিযোগে ওই মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষিক মাওলানা বশীরুল ইসলামকে (৫৭) গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
সোমবার দিবাগত গভীর রাতে এ মাদ্রাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় খালিয়াজুরী উপজেলার চাকুয়া ইউনিয়নের বাসন্দিা ওই ছাত্রটিকে উদ্ধার করে খালিয়াজুরী উপজলো স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে র্ভতি করা হয়েছে।
আটক বশীরুল ইসলাম ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার বিকাঠালয়িা গ্রামের মৃত হাফিজ উদ্দিনের ছেলে । তিনি ৮ সন্তানের জনক।

ছাত্রটির মা জানান, গত (২২ সেপ্টেম্বর) রোববার ভোর ৪ টার দিকে ছাত্রটিকে তাবিজ দিয়ে মেরে ফেলার ভয় দেখিয়ে ওই মাদ্রাসার টয়লেটের পাশে নিয়ে বলৎকার করে প্রধান শিক্ষক বশিরুল ইসলাম। এ সময় একই মাদ্রাসার সহকারি শিক্ষক মিজানুর রহমান তা দেখে মাদ্রাসা কমিটিকে জানায়। পরে কমিটির সভাপতি গোলাম আবু ইছহাক বিষয়টি পুলিশকে জানালে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে।

তিনি আরো জানান, বিগত প্রায় ১ মাস ধরে ভয় দেখিয়ে ছাত্রটিকে ওই শিক্ষক এধরণের কাজ করে আসছে। এসব বিষয় ইতিপূর্বে ছাত্রটি আমাদের পরিবারে সবাইকে জানালেও আমরা আগে তা গুরুত্ব দেইনি।

খালিয়াজুরী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এটিএম মাহমুদুল হক জানান, বশিরুল ইসলামকে গ্রেফতার করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসায় বলৎকার করার বিষয়টি বশিরুল স্বীকার করেছেন।









Leave a reply