রুমিনের আবেদন প্রমাণ করে সরকারকে মেনে নিয়েছে বিএনপি: গণপূর্তমন্ত্রী

|

গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম বলেছেন, প্লট বরাদ্দের জন্য জাতীয় সংসদের নারী এমপি ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানার আবেদন পেয়েছি। এ বিষয়ে অনুসন্ধান করে বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মন্ত্রী আরও বলেন, রুমিনের আবেদন প্রমাণ করে আওয়ামী লীগ সরকারকে তারা মেনে নিয়েছে বিএনপি।

প্রসঙ্গত, বিএনপি মনোনীত নারী সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা নিজের জন্য ১০ কাঠার প্লট চেয়ে আবেদন করেছেন। গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী শ. ম. রেজাউল করিমের কাছে পাঠানো এক চিঠিতে তিনি এ আবেদন করেন।

জাতীয় সংসদের প্যাডে পাঠানো এই চিঠিতে তিনি লেখেন- ‘ঢাকাস্থ পূর্বাচল আবাসিক এলাকায় ১০ কাঠার প্লটের প্রয়োজন। ঢাকা শহরে আমার কোন জায়গা/ফ্ল্যাট, জমি নাই। ওকালতি ছাড়া আমার অন্য কোন ব্যবসা/পেশা নাই। আমার নামে ১০ কাঠা প্লট বরাদ্দের জন্য সুব্যবস্থা করে দিতে আপনার মর্জি হয়।’

গত ৯ জুন দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসন থেকে মনোনয়ন নিয়ে বিএনপির সহ আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক রুমিন ফারহানা শপথ নেন।

শপথ গ্রহণ শেষে প্রতিক্রিয়ায় তখন তিনি সাংবাদিকদের বলেছিলেন, নিশ্চয়ই প্রথমবার সংসদ সদস্য হয়ে সংসদে আসা আমার জন্য আনন্দের। তবে আমি এমন একটি সংসদে যোগ দিতে যাচ্ছি যেটি জনগণের ভোটে নির্বাচিত না। সংসদ গঠিত হওয়ার পর থেকেই বলেছি, এটি অবৈধ সংসদ, এখনো দ্ব্যর্থহীন ভাষায় বলছি, এটি অবৈধ সংসদ।

রুমিন ফারহানা আরো বলেছেন, খালেদা জিয়া তিনবারের সাবেক প্রধানমন্ত্রী। তার মামলার মেরিট, তার বয়স, সামাজিক অবস্থান বিবেচনায় তিনি বাংলাদেশের আইন অনুযায়ী তাৎক্ষণিক জামিন লাভের যোগ্য। তাকে জামিন বঞ্চিত করে কারাগারে রাখা হয়েছে। যার পুরোটাই বেআইনি। তিনি রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার। নিশ্চয়ই সে বিষয়গুলো নিয়ে সংসদে কথা বলব।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ব্যাপক কারচুপির অভিযোগ তুলে সংসদে যোগ না দেয়ার সিদ্ধান নেয় বিএনপি। দলটি বলেছিল, কারচুপির নির্বাচনের মাধ্যমে একটি অবৈধ সরকার গঠন করেছে আওয়ামী লীগ। পরে অবস্থান বদল করে ‘প্রতিবাদের সীমিত সুযোগ কাজে লাগানোর’ কথা বলে সংসদে যোগ দেন দলটির ৫ জন এমপি। যদিও দলীয় মহাসচিব জানান তিনি শপথ নেবেন না।









Leave a reply